Viber নতুন সংস্করনে চমকে দেওয়ার মত ফিচার।

ndroid ফোনের জনপ্রিয় Messaging App ভাইবার তাদের নতুন সংস্করণ (5.5) উন্মুক্ত করেছে। অ্যাপটিকে আরও আকর্ষণীয় করে তুলতে যুক্ত করা হয়েছে নতুন নতুন ফিচার। ভাইবারের হেড অব প্রোডাক্ট Afir Yeal বলেছেন ‘আমরা গ্রাহকদের মতামত জেনেছি এবং এটা নিশ্চিত যে তারা ভাইবার উপভোগ করে এবং মেসেজিংএর চাইতেও বেশী কিছু প্রত্যাশা করে।’

‘আমরা সারাবিশ্বের ক্রমবর্ধমান ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের আন্তঃসংযোগ ঘটাতে ভাইবারকে একটি বৈশ্বিক প্লাটফরম হিসাবে প্রতিষ্ঠিত করতে চাই, বলেন অফির ইয়াল।

আসুন তবে এবার দেখে নেয়া যাক কি কি নতুনত্ব যুক্ত হয়েছে ভাইবারের নতুন সংস্করণে :

ফোন নাম্বার ও কন্টেন্ট শেয়ারিং : ভাইবারের সদ্য রিলিজ হওয়া সংস্করণে ফোনবুক থেকে ফোন নাম্বার শেয়ার করা যাবে। নাম্বারটি সাথে যুক্ত ছবি এবং অন্যান্য তথ্যাদি সংযুক্ত হবে এবং গ্রহীতা সহজেই তা সংরক্ষণ করতে পারবেন। এছাড়াও নতুন এই ভার্সনটির মেসেজবক্সে কোন লিংক পেস্ট করলে সেটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে ঐ সাইটটির ছবিসহ একটি প্রিভিউ তৈরি করবে। যার ফলে শেয়ারকৃত লিংকের হেডলাইন এক নজরে দেখে নেয়া যাবে।

নতুন ভিডিও কলিং ইন্টারফেস : প্রতি মাসে প্রায় ২৫০ মিলিয়ন ভিডিও কল করা হয় ভাইবারে। বর্তমান ভার্সনে নতুন ভিডিও কলিং ইন্টারফেস যুক্ত করা হয়েছে। গ্রহকেরা এখন তাদের কাঙ্খিত ভাইবার নাম্বারটির প্রোফাইল থেকে এবং সাম্প্রতিক কললিস্ট থেকে সরাসরি ভিডিও কল করতে পারবেন। কলিংয়ের ক্ষেত্রে আরেকটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো ডাটা চার্জ। ভাইবারের বর্তমান ভার্সনটির ভিডিও এবং অডিও কলিং ফিচার এতটাই উন্নত করা হয়েছে যে নেটওয়ার্ক ক্যাটাগরি অনুযায়ী ডাটা ব্যাবহৃত হবে। যেমন ৪জি এবং ওয়াইফাই নেটওয়ার্কে প্রতি মিনিট অডিও কলে ডাটা খরচ হয় ৪১৬ কিলোবাইট। আবার থ্রিজি নেটওয়ার্কে ১৫১ -২৪৪ কিলোবাইট/মিনিট এবং টুজি নেটওয়ার্কে ডাটা খরচ হবে মাত্র ৮৪ কিলোবাইট/মিনিট।

অ্যানিমেটেড স্টিকার : চ্যাটিংয়ের জগতে অ্যানিমেটেড স্টিকার তুমুল জনপ্রিয়। এরই মধ্যে অ্যানিমেটেড স্টিকার উন্মুক্ত করার ক্ষেত্রে ভাইবার নতুন মাইলফলক অতিক্রম করেছে। ৫০০ এর বেশী স্টিকার প্যাক এখন ভাইবারে যুক্ত হয়েছে। জনপ্রিয় স্টিকার প্যাক গুলি হলো VIOLET, EVE, LEGCT, RUDY ইত্যাদি।

উইন্ডোজ, ম্যাক, আইপ্যাড এ ভাইবার : ভাইবারের নতুন (৫.৫) ভার্সনটির এন্ড্রয়েড ফোন ছাড়াও অন্যান্য অপারেটিং সিস্টেমে ব্যবহারের উপযোগী করা। হয়েছে। এখন এন্ড্রয়েডচালিত ট্যাব, উইন্ডোজ, ম্যাক এবং আইপ্যাডে ভাইবার ব্যবহার করা যাবে। এছাড়াও ভাইবারের বর্তমান এন্ড্রয়েড ট্যাবলেটের ইন্টারফেসে এখন আরও অধিক ধারণক্ষমতাসম্পন্ন কলিং স্ক্রিন আছে। পাবলিক চ্যাটরুমগুলি হালনাগাদ করা হয়েছে। উল্লেখ্য যে বর্তমানে সারা বিশ্বে ১০০ মিলিয়নের বেশী মানুষ ভাইবার ব্যবহার।

No Responses

Write a response