অশ্লিলতার রানী ভীনা মালিকের পরিবর্তন!

ছবির এই মহিলাটির নাম ভীনা মালিক (Veena Malik) , সঙ্গত কারনে তার বিস্তারিত পরিচয় দেয়া সম্ভব নয়, এক কথায় তাকে বলা যায় পাকিস্তানের অশ্লীলতার রানী ৷ গত এক মাস আগেও সে গোটা পাকিস্তানকে অশ্লীলতা দিয়ে কাপিয়েছে, তার অশ্লীলতার বর্ননা দেয়া অসম্ভব ৷ অশ্লীলতা দিয়ে পাকিস্তানের যুবসমাজকে গ্রাস করে ফেলেছিল ৷

তবে, এইসব পরিচয় বর্তমানে ভীনা মালিকের জন্য অতীত বলা যেতে পারে ৷  আল্লাহর অশেষ রহমতে মাওলানা তারিক জামিল সাহেবের দাওয়াতে আল্লাহর এই বান্দির জীবনে অভাবনীয় পরিবর্তন এসেছে ৷ পাকিস্তানের অন্যতম শীর্ষ আলেম দাওয়াতে তাবলীগের শীর্ষ মুরুব্বি মাওলানা তারিক জামিল সাহব জানতে পারেন যে ভীনা মালিক (Veena Malik) নামে এক পাকিস্তানি মেয়ে অশ্লীলতার পসরা খুলে হাজার হাজার যুবকের চরিত্র নস্ট করছে, তখন মাওলানা তারিক জামিল সাহেব বিনা মালিকের কাছে দেখা করার সময় চান, গত জানুয়ারী মাসের শুরুর দিকে ভীনা মালিক তারিক জামিল সাহেবকে দেখা করার সময় দেন, সময় পেয়েই মাওলানা সাহেব বিনা মালিককে ইসলামের উত্তম আদর্শের প্রতি দাওয়াত দেন, আল্লাহর অশেষ মেহেরবানীতে অল্প সময়ের মধ্যেই বিনা মালিক নিজের ভুল বুঝতে পারেন এবং দাওয়াত কবুল করেন ৷

veena-malik-is going to umrah

আল্লাহর শুকরিয়া, যে ভীনা মালিক (Veena Malik) এক সময় শরীরে কাপর রাখতনা সেই ভীনা মালিক ওয়াদা করেন আর কখনই মাথা থেকে কাপর ফেলবেননা !! পাকিস্তানি গ্লামার জগতে আকাশচুম্বি ক্যারিয়ারকে এক রকমের আনুষ্ঠানিক বিদায় জানিয়ে দিয়েছেন ভীনা মালিক ৷ মাওলানা তারিক জামিল সাহেবের দাওয়াতের উছিলায় শুধু ভীনা মালিক (Veena Malik) হেদায়েতের রাস্তা দেখল যে তা নয়, সাথে পাকিস্তানও অশ্লীলতা থেকে একধাপ মুক্ত হলো এই ঘটনা থেকে স্পস্ট বুঝা যায়, দাওয়াত পৌছানো কতটা জরুরী, দাওয়াতের মেহনত করা কতটা জরুরী ৷ আল্লাহ আমাদের সকলকে দাওয়াতের গুরুত্ব বুঝার তাওফিক দান করুক (আমিন)।

পরিশেষে বলব, আমরা যে যেখানেই আছি সেখান থেকেই কিছু না কিছু দাওয়াতি কাজ করি, বলা যায়না কার কথার উছিলায় আল্লাহ কাকে হেদায়েত দান করেন ৷

1