সিম্ফোনি ব্র্যান্ডের এইচ সিরিজের ৪ টি মোবাইল হ্যান্ডসেট

বর্তমানে দেশে এসেম্বল করা স্মার্টফোনের ব্র্যান্ড হিসেবে সিম্ফোনি মোবাইল সবচেয়ে জনপ্রিয় ব্র্যান্ডগুলোর একটি। বাংলাদেশের বাজারে সিম্ফোনি মোবাইল যাত্রা শুরু করে ২০০৮ সালে। তখন থেকে এখন পর্যন্ত সারা পৃথিবীর সকল নামী-দামী ব্র্যান্ডগুলোর সঙ্গে পাল্লা দিয়ে আমাদের দেশীয় বাজারে একটি অবস্থান করে নিয়েছে এ ব্র্যান্ডটি।

কিছুদিন আগে আমার এক বন্ধুর জন্য মোবাইল কেনার উদ্দেশ্যে এ ব্র্যান্ডের ফোনগুলো নিয়ে একটু ঘাটাঘাটি করতে হয়েছিলো। এতদিন পর্যন্ত ফিচার ফোন ব্যবহার করে এবার তার শখ হয়েছে, এন্ড্রয়েড কেনার। টাকাও যোগাড় করেছে হাজার দশেকের কাছাকাছি। এ সকল ব্যাপারে আমার আগ্রহের কারণেই ফোনের মডেল ঠিক করার দায়িত্বটা আমার উপরই এসে পড়লো। মূলতঃ বাজেটের কারণেই সনি, স্যামসাং-এর মত ব্র্যান্ডগুলোর চিন্তা বাদ দিয়ে ওয়ালটন এবং সিম্ফোনিকে ঘিরেই খোঁজাখুজি শুরু করলাম। শেষ পর্যন্ত সিম্ফোনি মোবাইলে স্থির হলাম। নিচে সিম্ফোনি ব্র্যান্ডের দশ হাজারের কমদামী কিন্তু খুবই যুগোপযোগি H সিরিজের ৪টি মডেল নিয়ে আলোচনা করার চেষ্টা করছি।

Symphony Xplorer H100: কোয়াড-কোর ১.৩ গিগাহার্জের শক্তিশালী প্রসেসরের সঙ্গে ১‌ জিবি র্যািম এবং ৮ জিবি ইন্টারনাশ স্টোরেজসহ সিম্ফোনির এ মডেলটির দাম ৯ হাজার ৫০০ টাকা। স্ক্রীণ সাইজ ৫ ইঞ্চি। ক্যামেরা রেজ্যুলেশন ৮ মেগাপিক্সেল। ডিজাইনটাও বেশ সুন্দর। অডিও/ভিডিও কোয়ালিটিও আপ টু দ্যা মার্ক। সবমিলিয়ে পছন্দ হতে বাধ্য।

Symphony Xplorer H55: ৫ ইঞ্চি লম্বা ডিসপ্লের ভেতরে এই মডেলটিকেও নতুন স্মার্টফোন কেনার ক্ষেত্রে বিবেচনায় রাখতে পারেন। কোয়াড- কোর, ১.৩ গিগাহার্জের প্রসেসর এবং ১ জিবি র্যাোমসহ এ ফোনটির অপারেটিং সিস্টেম এন্ড্রয়েড কিটক্যাট। সঙ্গে রয়েছে ৮ মেগাপিক্সেল রেয়ার এবং ২ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা এবং ৮ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ যা মাইক্রোএসডি কার্ড ব্যবহার করে ৩২ জিবি পর্যন্ত এক্সপান্ড করা সম্ভব। দাম মাত্র ৯ হাজার টাকা।

Symphony Xplorer H50: এ ফোনের স্পেসিফিকেশন পুরোটাই H55 এর মতই। কেবলমাত্র ডিজাইনে কিছুটা পার্থক্য আছে। এছাড়া এ ফোনটির স্ক্রীণ রেজ্যুলেশনও H55 মডেলটির চেয়ে একটু কম। সেন্সরের বিন্যাসের ক্ষেত্রেও সামান্য কিছু পার্থক্য চোখে পড়বে। দাম মোটামুটি ৮ হাজার ৯৯০ টাকা।

Symphony Xplorer H20: ১.৩ গিগাহার্জ কোয়াড-কোর প্রসেসরসমৃদ্ধ এ ফোনটির প্রাইমারি ক্যামেরা ৫ মেগাপিক্সেল। র্যাHম ১ জিবি এবং রম ৮ জিবি, যা মাইক্রোএসডি মেমোরি কার্ড ব্যবহার করে ৩২ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো সম্ভব। ১৪৫ গ্রাম ওজনের এ ফোনটির ডিজাইন আকর্ষণীয়। দাম ৮ হাজার ৯০ টাকা মাত্র।
আশা করি লেখাটি আপনাদের কাজে আসবে। দাম বিভিন্ন এলাকা এবং শপিং সেন্টারভেদে বিভিন্ন হতে পারে। আমি এখানে যে দামগুলো দিয়েছে, সেটা পেয়েছি Symphony Mobile Price এ সাইটটি থেকে।

No Responses

Write a response