হয়তো কিছুক্ষণ আগেই এই অস্বাস্থ্যকর ৭টি কাজের কোনোটি আপনি করে ফেলেছেন! এখনই জেনে রাখুন

১) আপনি কি আজ আপনার মুখে আঙুল বা হাত রেখেছিলেন?
আপনি গা বা মুখ থেকে হাত সরিয়ে রাখতে পারেন না হয়ত। মানুষ প্রতি ঘণ্টায় গড়ে ৪ বার মুখে হাত দেয়। কিন্তু তাতে কেন সমস্যা?

সমস্যা কারণ, আপনার অফিস ডেস্ক বা কাজের জায়গার প্রতি বর্গইঞ্চিতে টয়লেট সিটের চেয়েও বেশি ব্যাকটেরিয়া থাকে। আরিজোনা বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা এই কথা জানিয়েছেন। আপনি যখন জীবানুঅলা জায়গায় হাত রাখছেন আর পরে সেই হাতই আপনার কপালে বা চিবুকে ঠেকাচ্ছেন তখন আপনার অসুস্থ হওয়ার আশঙ্কা বেড়ে যায়।

চিবুকে হাত রাখার কারণে অফিসকর্মীকে আত্মপ্রত্যয়ী বা প্রফেশনাল দেখাচ্ছে। কিন্তু চিবুকে হাত ব্যাপারটি বিপজ্জনক।

চিবুকে হাত রাখার কারণে অফিসকর্মীকে আত্মপ্রত্যয়ী বা প্রফেশনাল দেখাচ্ছে। কিন্তু চিবুকে হাত ব্যাপারটি বিপজ্জনক।

নিউ ইয়র্ক সিটির ত্বক বিশেষজ্ঞ হুইটনি বোয়ে বলছন, শুধু মুখে হাত দিলে বা মুখ ডললেই মুখের ত্বকে ব্রণ বা ফুসকুড়ি উঠতে পারে। হাত দিয়ে মুখ ঘষলে পরে মুখত্বকের ছিদ্রি বন্ধ হয়ে যেতে পারে। এর ফলাফল হিসাবে সপ্তাহ দুই পরে ব্রণ বা ফুসকুড়ি দেখা দিতে পারে আপনার মুখে।

২) আপনি কি চেয়ারে একটানা বসেছিলেন আজকে?
বেশ কিছু গবেষণায় দেখা গেছে দীর্ঘ সময় বসে থাকা শরীরের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর। আপনার ওবেসিটি, হৃদরোগ, ডায়াবেটিস, স্ট্রোক ও মৃত্যুর ঝুঁকি বসে থাকার কারণেই অনেক বেড়ে যেতে পারে। যুক্তরাষ্ট্রের নর্থওয়েস্টার্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন একটি গবেষণায় দেখা গেছে, আপনি বাড়তি যত ঘণ্টা চেয়ারে বসে থাকেন তা শারীরিকভাবে আপনার নিষ্ক্রিয় হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা বাড়ায় শতকরা ৫০ ভাগ।

ls-june-26-b

আপনি বাড়তি যত ঘণ্টা চেয়ারে বসে থাকেন তা শারীরিকভাবে আপনার নিষ্ক্রিয় হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা বাড়ায় শতকরা ৫০ ভাগ।

সবচেয়ে খারাপ ব্যাপার হল, আপনি যদি নিয়মিত ব্যায়ামও করেন তবু অতিরিক্ত বসে থাকার কারণে সুস্থ থাকার সম্ভাবনা কমে যায়। টানা আধা ঘণ্টা বা এক ঘণ্টা বসে থাকার পর কয়েক মিনিটের জন্যে উঠে দাঁড়ান, হাঁটাহাঁটি করুন।

৩) আপনি কি আজকে অনেক অনেক বার ফেসবুক ব্রাউজ করছিলেন?
আপনার গভীর ফেসবুক আসক্তি আপনার পারিবারিক জীবন শেষ করে দিতে পারে।

সামাজিক মাধ্যমের কারণে পার্টনারদের মধ্যে হিংসা মূলক কর্মকাণ্ড বেড়ে যাওয়া এখন খুব সাধারণ একটা ব্যাপার।

সামাজিক মাধ্যমের কারণে পার্টনারদের মধ্যে হিংসা মূলক কর্মকাণ্ড বেড়ে যাওয়া এখন খুব সাধারণ একটা ব্যাপার।

চিলিতে গবেষকরা দেখেছেন, যারা ফেসবুক ব্যবহার করে না তাদের তুলনায় যারা ফেসবুক ব্যবহার করে তাদের মধ্যে গত এক বছরে স্বামী/ স্ত্রী ছেড়ে যাওয়ার ভাবনা দুই গুণ বেড়েছে। গবেষকরা বলছেন, সামাজিক মাধ্যমের কারণে পার্টনারদের মধ্যে হিংসা মূলক কর্মকাণ্ড বেড়ে যাওয়া এখন খুব সাধারণ একটা ব্যাপার।

৪) কাজ করতে করতে বা অন্য দিকে মনোযোগী হয়ে খাবার খেয়েছেন আজ?
লিভারপুল বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা দেখেছেন, যারা কোনো কাজ করতে করতে বা অন্য দিকে মনোযোগ দেওয়া অবস্থায় কিছু খায় তারা সাধারণত বেশি ক্যালরি গ্রহণ করে। এবং সারা দিনেই তাদের কাজে তার প্রভাব পড়তে থাকে।

eating-1

যারা অন্য দিকে মনোযোগ দেওয়া অবস্থায় কিছু খায় তারা সাধারণত বেশি ক্যালরি গ্রহণ করে।

খাওয়ার সময়ে আর সব বাদ দিয়ে খাওয়ার দিকেই মনোযোগ দিন।

৫) আজকে কি একবার চোখ কচলিয়ে ছিলেন?
যুক্তরাষ্ট্রের ওয়েক ফরেস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের অপথালমোলজির অধ্যাপক কেইথ ওয়াল্টার বলেছেন, চোখ কচলানো কেরাটোকোনাস রোগের সাথে সম্পর্কিত। এই রোগে চোখের কর্ণিয়া দুর্বল ও পাতলা হয়ে যায়, ফলে দৃষ্টিশক্তি কমে যায়।

eye-1

চোখ কচলানো কেরাটোকোনাস রোগের সাথে সম্পর্কিত। এই রোগে চোখের কর্ণিয়া দুর্বল ও পাতলা হয়ে যায়

ল্যাসিক, লেন্স বা চশমার মাধ্যমে দৃষ্টিশক্তি ঠিক হয় না। আপনি যদি লেন্স পরে চোখ কচলান, তাহলে আপনার চোখের মণিতে লেন্সের আঘাত লাগতে পারে।

ড. ওয়াল্টার বলেছেন, কন্টাক্ট লেন্সের আঘাত লাগা তিনজন রোগীর মধ্যে একজন পাই যার চোখের মণির নিচে আঘাত লেগেছে, অর্থাৎ খুব জোরে  চোখ কচলিয়েছে। চোখে কোনো চুলকানি বা শুষ্কতা বা কোনো সমস্যা বোধ করলে ডাক্তার দেখান।

৬) আজকেও কি আপনার কাজের জায়গা অগোছালো ছিল?
আপনার কাজের জায়গা বা টেবিল বা ডেস্কের অবস্থা আপনার স্বাস্থ্যে প্রভাব ফেলে। যুক্তরাষ্ট্রের মিনেসোটা বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণায় অংশগ্রহণকারীদের একটি অংশকে গোছানো স্পেসে এবং আরেকটি অংশকে অগোছালো স্পেসে কাজ করতে দেওয়া হয়েছিল।

আপনার কাজের জায়গা বা টেবিল বা ডেস্কের অবস্থা আপনার স্বাস্থ্যে প্রভাব ফেলে।

১০ মিনিট পরে তাদেরকে একটা আপেল আর একটা চকলেট বার খেতে দেওয়া হয়। যারা গোছানো স্পেসে ছিলেন তাদের ৬৭ ভাগ আপেল নিয়েছিলেন, আর যারা অগোছালো জায়গায় ছিলেন তাদের ৮০ ভাগ ক্যান্ডি বারটি নেন।

গোছানো পরিবেশ আপনাকে স্বাভাবিকভাবেই ভালো সিদ্ধান্ত নিতে প্রণোদিত করে।

৭) আপনি প্রস্রাব আটকে রেখেছিলেন আজকে?
আপনি যখন ফোনে কথা বলেন বা মেসেজ চ্যাট করেন বা বই পড়তে থাকেন তখন কি এগুলি ছেড়ে একদমই উঠতে পারেন না? আপনি কি প্রায়ই প্রস্রাব আটকে রাখেন?

phone-1

আপনি যখন ফোনে কথা বলেন বা মেসেজ চ্যাট করেন বা বই পড়তে থাকেন তখন কি এগুলি ছেড়ে একদমই উঠতে পারেন না?

নিয়মিত প্রস্রাবের ডাক উপেক্ষা করলে বা প্রস্রাব আটকে রাখলে আপনার মূত্রনালীতে ইনফেকশন দেখা দিতে পারে। নয়ত দেখা যাবে ব্লাডারে ইনফেকশন দেখা দিয়েছে। এমনকি যে পেশি ব্লাডারের কার্যক্রম ঠিকঠাক রাখে তাকে দুর্বল করে ফেলবে আপনার এই আপাত নিরীহ অভ্যাস।

কালেক্টেডঃ bissoy.com

No Responses

Write a response