হোয়াটসঅ্যাপ আর নিরাপদ নয়

image

মোবাইল মেসেজিং অ্যাপ হিসাবে বিশ্বের সব থেকে বেশি লোক যে অ্যাপ ব্যবহার করেন তা হল হোয়াটসঅ্যাপ। কিন্তু সেটি ব্যবহার করা কি আদৌ নিরাপদ? সম্প্রতি ইলেকট্রনিক ফ্রন্টিয়ার ফাউন্ডেশন (ইইএফ)-এর রিপোর্ট দেখলে আপনি শিউরে উঠতে পারেন। কারণ যতটা ভরসা করে আপনি চ্যাট করার সময় আপনার নানা ব্যক্তিগত তথ্য সেখানে লেখেন তা আদপেও নিরাপদ নয়। বরং সেই সব তথ্য যে কোনও মুহূর্তে তা চলে যেতে পারে অন্য কারও হাতে।

সম্প্রতি ইইএফ যে রিপোর্ট দাখিল করেছে তা মোটেই ব্যবহারকারীদের পক্ষে সুখকর নয়। এর পাঁচটি মাপকাঠির চারটিতেই উতরোতে পারেনি হোয়াটসঅ্যাপ। কী সেই মাপকাঠি? এখানে ডেটা সুরক্ষা থেকে তথ্য নিজেদের কাছে জমা রাখা বা কোনও দেশের সরকার যদি হোয়াটসঅ্যাপের কাছে কোনও ব্যবহারকারীর ডেটা চেয়ে পাঠায় সে ক্ষেত্রে বা ব্যবহারকারীদের জানানো ইত্যাদি বিষয়গুলির উপর নজর দেওয়া হয়। দেখা গিয়েছে এই পাঁচটির মধ্যে চারটিতেই ডাহা ফেল হোয়াটসঅ্যাপ।

যে সব সংস্থা এই সব মাপকাঠিতে সব বিষয়ে পাস করেছে সেগুলি হল, অ্যাপল, ড্রপবক্স, অ্যাডোব, ইয়াহু, ওয়ার্ল্ড প্রেস, উইকিমিডিয়া ইত্যাদি। হোয়াটসঅ্যাপের মতো ভেরিজন এবং AT&T সফ্টওয়্যার সংস্থারও একই অবস্থা। এ সব দেখার পর আপনি যদি হোয়াটসঅ্যাপ আনইনস্টল করার কথা ভেবে ফেলেন তা হলে আশ্চর্য হবেন না। কারণ রিপোর্ট প্রকাশ্যে আসার পর বেশ কয়েক লক্ষ ব্যবহারকারী ইতিমধ্যেই হোয়াটসঅ্যাপকে বিদায় জানিয়েছেন।

No Responses

Write a response