রঙের পছ্ন্দভেদে চেনা যায় মানুষের মন!

ব্যক্তিভেদে একেক ব্যক্তির কাছে একেক রং প্রিয়। অার এমনটা হওয়াটা স্বাভাবিক। তবে নতুন তথ্য হলো, রঙের পছ্ন্দভেদে নাকি মানুষের মন চেনা যায়।

মনস্তাত্ত্বিকদের মতে, রং মানুষের ব্যক্তিত্ব গঠনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। নিচে কোন রঙের মানুষের মন-মানসিকতা কেমন হয় তা নিয়ে আলোচনা করা হলো :

গোলাপি :

সাধারণত নরম স্বভাবের মানুষদের পছন্দরে রংয়ের তালিকায় গোলাপী প্রাধান্য পায়। সংবেদনশীল ও কিছুটা শিশুমনের অধিকারী হন তারা। সহজে বড় হতে চান না বা বড় হওয়া নিয়ে তারা খুব বেশি চিন্তিতও থাকেন না। বাস্তব দুনিয়া থেকে পালিয়ে গোলাপী রঙের আড়াল খোঁজেন তারা। মানসিক পরিণতি অর্জন হওয়ার পর তাদের প্রিয় রংয়ের তালিকায় লাল রং শীর্ষে উঠে যায়।

সবুজ:

জীবনে অর্থ ও নিরাপত্তার বিষয়টা অনেক গুরুত্বপূর্ণ। এদিক থেকে সবচেয়ে বেশি সতর্ক তারাই, যাদের পছন্দের রং সবুজ। আবার প্রকৃতির রং সবুজ হওয়ায় এসব মানুষের প্রকৃতিপ্রেমীও হয়। সম্পর্কে ও সঞ্চয়ের ক্ষেত্রে এরা সব সময় নিরাপত্তা খোঁজেন। তারা নিজেদের সফল হিসেবে দেখতে চান। সামাজিক ইমেজ নিয়েও তারা খুবই সচেতন থাকেন।

লাল:

যাদের প্রিয় রঙ লাল; তারা সাহসী, প্রত্যয়ী ও আত্মবিশ্বাসী হয়। আবার ভালোবাসার রং লাল। এই যুক্তিতে যাদের পছন্দের রং লাল; তারা দ্রুত অন্যদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে। বিজ্ঞানীরা জানান, যারা লাল রং পছন্দ করেন, তারা সহজেই অন্যের মন আকর্ষণ করতে পারেন।

নীল :

শান্ত প্রকৃতির মানুষদের প্রিয় রংয়ের তালিকায় প্রথমেই থাকে নীল রং। এরা সাধারণত বিশ্বাসী হন। যেকোনো মানুষের বিশ্বাস অর্জনে তাদের তেমন বেগ পেতে হয় না। আবার আকাশের রং নীল হওয়ায় সমুদ্রের মাঝেও এই রংয়ের আভা পাওয়া যায়। ফলে যাদের নীল রং প্রিয়, তারা সহজে শান্তি ও একাত্মতা খুঁজে নিতে পারেন যা অন্যরা পারেন না। অন্যদিকে তাদের চিন্তার গভীরতাটাও সমুদ্রের মতো।

সাদা :

শুভ্রতার প্রতীক সাদা। তাই যাদের প্রিয় রং সাদা, তাদের ভেতর-বাহিরে শুভ্রভাব দেখা যায়। সাদা যখন পছন্দের তালিকায় শীর্ষে থাকে তখন অন্যের কাছে নিজেকে সহজ, সরল, সৎ হিসেবে তুলে ধরার প্রচেষ্টাও অনেক বেশি থাকে। তবে অন্যের কাছে তাদের উপস্থাপনার ধরন এবং বাস্তবের মধ্যে সব সময় মিল নাও থাকতে পারে। মূলত তারা অতি সচেতন না হলেও সচেতন থাকার চেষ্টা করেন।

কালো :

কালো মানেই জটিলতা। যেখানে সব রংয়ের হিজিবিজি অবস্থান। ফলে প্রিয় রং কালো হলেই ধরে নিতে হবে, প্রিয় রংয়ের মতো মানুষটিও হিজিবিজি। কিছু অহংকারী, তবে জটিল বাস্তবের প্রতি আকৃষ্ট হন এই মানুষেরা। সবকিছুতে নিজের নিয়্ন্ত্রণ বজায় রাখতে চান তারা। অন্যের কাছে নিজেকে রহস্যময়ীভাবে উপস্থাপন করতে এবং নিজের চারপাশ রহস্যময় করে রাখতে ভালবাসেন তারা।

হলুদ :

আদর্শবাদী ও আশাবাদী মানুষদের প্রিয় রংয়ের তালিকায় হলুদ থাকে। নিজেদের নিয়ে সবসময় খুশি থাকতে ভালোবাসেন তারা। তবে অনেকের মাঝে নিজেদের গুরুত্ব তেমন পান না তারা। আদর্শবাদী, আশাবাদী স্বভাবের জন্য এরা মানুষের কাছে অদ্ভুত হিসেবে পরিচিত হন। তবে পৃথিবীতে খুব কম মানুষই আছেন, যাদের প্রিয় রংয়ের তালিকায় হলুদ ঠাঁই পায়।

কমলা :

বন্ধুত্বপূর্ণ, সহজ এবং কিছুটা নাটুকে প্রকৃতির মানুষদের প্রিয় রংয়ের তালিকায় কমলা রং থাকে। এদের কাছে সম্পর্কের মূল্য খুব কম। সম্পর্ক টিকিয়ে রাখার চেয়ে আলোচনায় থাকতে বেশি পছন্দ করেন তারা।

বাদামি:

সহজ ও আরামপ্রিয় প্রকৃতির মানুষদের প্রিয় রং বাদামি। খুব কম মানুষের প্রিয় রংয়ের তালিকায় এটি থাকে। মনস্তাত্ত্বিকদের মতে, তারা কোনো জটিলতা পছন্দ করেন না। সাধারণত বিশ্বাসী হন।

বেগুনি :

যারা অনেক বেশি স্বপ্নের দুনিয়ায় বাস করেন, তাদের প্রিয় রং বেগুনি। নিজেদের মতো করে চলতে ভালোবাসেন তারা। তাদের ভবিষ্যদ্বাণীর ক্ষমতা প্রখর হয়।

ধূসর :

দায়িত্ব ও কর্তব্যের অবহেলা সবচেয়ে বেশি করেন- এমন মানুষদের প্রিয় রং ধূসর হয়। সম্পর্কে জড়াতে চান না তারা। মনস্তাত্ত্বিকদের মতে, একঘেয়ে ও আবেগহীন মানুষ হন তারা। কেনো সিদ্ধান্ত নিতে গেলে অনেক বেশি দ্বিধা-দ্বন্দ্বে ভোগেন এই মানুষগুলো।

No Responses

Write a response