যে ৭ ধরনের নারী আপনার প্রেমিকা হওয়ার যোগ্য নয়

যে ৭ ধরনের নারী আপনার প্রেমিকা হওয়ার যোগ্য নয়পুরুষরা নারীর সৌন্দর্যের দিকেই সবার আগে আকৃষ্ট হন সত্য, কিন্তু আজকাল শুধু নারী শুধু সুন্দর হলেই চলে না। দুজনে পাশাপাশি চলতে চাই আরও অনেক বাড়তি গুণ, তাই সচেতন পুরুষেরা খুব ঝেড়ে বেছেই নিজের সঙ্গিনী নির্বাচন করে থাকেন। যত প্রকার মানুষ,তত প্রকার মত এটা সত্য। কিন্তু তারপরেও এমন কিছু নারী আছেন যারা আপনার প্রেমিকা হওয়ার যোগ্য নয়, কেননা তাঁরা কেবল অশান্তি বাড়াবে। আসুন, জেনে নেই তাঁদের সম্পর্কে।
১. গায়ে পড়া স্বভাবের মেয়ে : আপনারা হয়ত এমন কিছু নারী দেখে থাকবেন যারা কথায় কথায় গায়ে পড়া স্বভাবের হয়ে থাকে। যেকোনো অপরিচিত মানুষের সাথে তারা খুব সহজেই মিশে যেতে পারেন এবং গায়ে হাত দিয়ে কথা বলেন। তাঁদের ব্যক্তিগত বিষয়ে চট করে নাক গলিয়ে ফেলেন, কাউকে প্রাইভেসি দিতে জানেন না। এমন ধরনের মেয়েদের থেকে যতটা সম্ভব দূরে থাকাই শ্রেয়। এদের সাথে কখনই প্রেম করবেন না। এরা একবার আপনার জীবনের সাথে জড়িয়ে পড়লে আর কোনোদিনই তার হাত থেকে মুক্তি পাবেন না পাশাপাশি আপনার জীবনকে করে তুলবে নরকের সমতুল্য।
২. ঝগড়াটে স্বভাবের নারী : পৃথিবীতে ঝগড়াটে স্বভাবের নারীর অভাব হবে না কোনোদিনই। প্রথম প্রথম কোনো কোনো নারীকে দেখে বোঝা যায় না যে এই নারীটা এমন ঝগড়াটে হবে। কিন্তু পরক্ষণে বোঝা যায় তারা কেমন ঝগড়া করতে পারেন। তারা কথায় কথায় ঝগড়া জুড়ে দেন। এমন নারীর সাথে আপনি যদি প্রেম করেন তাহলে দেখবেন আপনার প্রেমের মধ্যে কোনো রোমান্টিকতা থাকবে না থাকবে শুধু ঝগড়া আর ঝগড়া। ঝগড়া করতে করতেই আপনার অর্ধেক আয়ু শেষ হয়ে যাবে। এ কারণে এ ধরনের ঝগড়–টে নারীর সাথে কখনই প্রেম করবেন না।
৩. অতিরিক্ত ক্যারিয়ার সচেতন নারী : ক্যারিয়ার নিয়ে সচেতন হওয়া ভালো কিন্তু অতিরিক্ত সচেতন হওয়া ভালো না। এই ধরনের নারী যারা ক্যারিয়ার নিয়ে অতিরিক্ত সচেতন তারা ক্যারিয়ারের জন্য যেকোনো কিছু করতে পারে এমনকি বহুদিনের সম্পর্ক বা সংসার ভেঙ্গে দিয়ে চলে যেতে পারেন। এ কারণে অতিরিক্ত ক্যারিয়ার সচেতন নারীদের সাথে নিজের জীবনকে না জড়ানোই উত্তম। তাদেও সাথে প্রেম করা থেকে বিরত থাকুন। প্রেম করার আগে দেখে নিন মেয়েটি অতিরিক্ত ক্যারিয়ার নিয়ে ভাবছেন কি না। যদি তা হয়ে থাকে তাহলে আপনি তার থেকে চোখ ফিরিয়ে নিন।
৪. অতিরিক্ত কথা বলা নারী : এমন অনেক নারী আছেন যারা অতিরিক্ত পরিমাণে কথা বলে থাকেন। তাদের কথায় সবারই কান ঝালাপালা হবার উপক্রম হয়ে যাবার মত হয়। এই ধরনের নারীরা প্রয়োজনে অপ্রয়োজনে অনেক কথা বলেন। আবার তার কথা না শুনতে চাইলে রাস্তাঘাটে সিনক্রিয়েট করতেও বাঁধে না তাদের। এক্ষেত্রে অবশ্যই প্রতিটি পুরুষের উচিৎ এই ধরনের বাচাল নারীদের কাছ থেকে নিজেকে দূরে রাখা এবং তাদের সাথে কোনোমতেই প্রেম না করা।
৫. লোভী নারী : পৃথিবীতে এমন অনেক নারীও আছেন যারা চান তাদের জীবনসঙ্গী যেন অনেক বড় একজন মানুষ হন অর্থাৎ তার যেন অনেক বেশি টাকা হয়। জীবনসঙ্গী যেন শুধু কাজ আর কাজ করে জীবনের সবচেয়ে উঁচু সিড়িটিতে উঠতে পারেন। এর জন্য তার যতই কষ্ট হোক না কেন যেতে তাকে হবেই। আবার এমন অনেকেই আছেই যারা শুধু আজীবন চেয়েই যাচ্ছেন। অর্থাৎ অতিরিক্ত লোভী নারী। পুরুষদের উচিৎ এই ধরনের লোভী নারীদের এড়িয়ে চলা এবং তাদেও সাথে প্রেম না করা। এরা আপনার জীবনে এলে আপনি সামগ্রিক দিক থেকে কখনই সুখী হবেন না। আপনাকে শুধু লক্ষ্য অর্জনে ছুটতেই হবে বিনিময়ে জীবনে কোনোদিনই সুখী হবেন না।
৬. পরপুরুষে অতি আগ্রহী নারী : এমন অনেক নারী আছেন যারা পর পুরুষে আসক্ত হয়ে পড়েন। তাদের জীবনে নতুন নতুন পুরুষের চাহিদা কাজ করে। একজন পুরুষে তারা সুখী হয়ে ওঠেন না। এমতাবস্থায় আপনি যদি না জেনে এ ধরনের নারীর সাথে প্রেম করেন তাহলে আপনার জীবন ভালো থাকার কথা নয়। এমন নারীকে ভালোবাসলে আপনার জীবন ধ্বংস হওয়া ছাড়া উপায় নাই। এ কারণে যতটা সম্ভব এ ধরনের নারীর সাথে কোনোদিনই প্রেম করবেন না। যদি দেখেন আপনার প্রেমিকা আপনার বন্ধুদের প্রতি বেশি আগ্রহী, এমন মেয়েকে এড়িয়ে চলাই ভালো আপনার জন্য।
৭. হিংসুটে নারী :এমন অনেক নারী রয়েছেন যারা অনেক বেশি হিংসুটে হয়ে থাকেন। স্বাভাবিকভাবেই প্রতিটা নারীর মাঝেই কিছুটা হিংসাত্মক বিষয় থেকে থাকে কিন্তু সেটা যখন অতিরিক্ত পরিমাণে হয়ে যায় তখন তা হয়ে ওঠে ধ্বংসাত্মক। হিংসা একটি সংসারকে পর্যন্ত ধ্বংস করে দিতে পারে। এ কারণে এই ধরনের হিংসুটে মেয়েদের সাথে জীবন থাকতে প্রেম করবেন না। তা না হলে এই নারী আপনার পরিবারে ঝামেলা বাঁধিয়ে দিতে পারে, বাবা মায়ের সাথে আপনার সম্পর্ক নষ্ট করে দিতে পারে, আপনার জীবনে কোনো মেয়ে মানুষকে এমনকি অফিসের কলিগ বা চাচাতো, মামাতো,ফুফাতো বোনদের সহ্য করবে না। সব মিলিয়ে এই নারীর জন্য আপনি আপনার ব্যক্তিসত্ত্বা হারিয়ে ফেলতে পারেন।

সোর্সঃ ইন্টারনেট

মন্তব্যগুলি

মন্তব্যগুলি

1 Star2 Stars3 Stars4 Stars5 Stars (No Ratings Yet)
Loading...