যাদু বিদ্যা কি ?

পবিত্র কুরআনের শেষ দুটি সূরায় যাদুর প্রসঙ্গ
এসেছে । সূরা ফালাকে গিরো লাগানোর
ক্ষতি থেকে আল্লাহর পানাহ চাওয়ার
কথা বলা হয়েছে যা সরাসরি যাদু । হাদিসের
বর্ণনায় পাওয়া যায় যে, লবীদ ইবনুল আসাম
নামীয় এক ইহুদী যাদুকর এবং তার দু্ই কন্যায় মিলে যাদু করলে হযরত নবী করিম (সাঃ) অসুস্হ
হয়ে পড়েন । দীর্ঘ ছয়মাস তার এই
অসুস্হতা অব্যাহত থাকে । অতঃপর হযরত
জীবরাঈল (আঃ) এর আগমন হলো ।
তিনি বলে দিলেন যে, অমুক কূপের মধ্যে আপনার
মাথার কয়েকগাছি কেশ দ্বারা ভাঙ্গা চিরূণীর
মধ্যে গিরো লাগিয়ে ডুবিয়ে রাখা হয়েছে ।
কাউকে পাঠিয়ে সেটি উঠিয়ে আনুন । হযরত
নবী করীম (সাঃ) লোক
পাঠিয়ে গিরো লাগানো চিরুণীটি উদ্ধার
করে আনলেন । গিরোগুলি খুলে দেওয়া হলো এবং যাদুর সকল
ক্রিয়া বিনষ্ট হয়ে গেলো । কুরআনের শেষ সূরা নাসে খান্নাসের কু-
মন্ত্রণা থেকে আল্লাহ পানাহ
চাইতে বলা হয়েছে । সেই খান্নাস কারা ?
যারা মানুষের মনের মধ্যে নানা কু-
মন্ত্রণা প্রবেশ করিয়ে দেয় । আর এরা জ্বিন
এবং মানুষ উভয় প্রকারের মধ্যেই রয়েছে । উল্লেখ্য যে, শয়তান জ্বিন প্রজাতির মধ্য
থেকে সৃষ্টি হয়েছে । সূরা তওবার ৫০
নং আয়াতে বলা হয়েছে, সেছিল জ্বিন
প্রজাতির । অতঃপর আল্লাহতায়ালার
নাফরমানি করেছে । মোটকথা, যাদু একটি শয়তানি বিদ্যা । এর
প্রয়োগ দ্বারা নানা প্রকার অসাধ্য সাধন
করা হয় । যুগ পরষ্পর ইহুদীর নিকট থেকে যাদুর
চর্চ্চা বিশ্বময় বিস্তার লাভ করেছে ।
বৈজ্ঞানিক উন্নতির এই যুগেও যাদুর প্রয়োগ
এবং অনিষ্টকরিতা থেমে নেই । এই ক্ষতিকর বিদ্যাটি আয়ত্ব এবং অন্যের উপর প্রয়োগ
করতে গিয়ে এমনসব জঘণ্য ধরনের নোংরা কিছু
অপকর্ম করতে হয় যা বর্ণনা করার মত নয় ।
তারপরও নিতান্ত শয়তান প্রকৃতির কিছু লোক
যাদুবিদ্যা আয়ত্ব করে ও প্রয়োগ করে থাকে ।
যাদুর অনিষ্টকারিতা থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য কুরআনের কিছু সংখ্যক আয়াত এবং হাদিস
শরীফে দোয়া রয়েছে । মুমিন-মুসলমানগণ
পক্ষে সেগুলি আয়ত্ব করে আত্নরক্ষা করার পথ
খোলা রয়েছে ।
সূরা নেসার একখানা আয়াতে জ্বিবত ও
তাগুতের উপর আস্হা বা বিশ্বাসের কথা বলা হয়েছে । হযরত ওমর (রাঃ) এই
আয়াতের তফসীরে জ্বিবত অর্থ যাদু এবং তাগুত
অর্থ শয়তান বলেছেন ।
হযরত আবু হোরায়রা (রাঃ) এর বর্ণনা , রাসূল
(সাঃ) বলেছেন, মানুষের সকল নেক আমল ধ্বংস
করে দেয় সাতটি অপকর্ম, তন্মেধ্যে একটি হচ্ছে যাদু করা ।
বুখারী শরীফের এক বর্ণনায় রয়েছে যে,
বাজালা ইবনে আবদুহু বর্ণনা করেন যে, আমার
নিকট প্রেরীত এক ফরমানে হযরত ওমর (রাঃ)
লিখেছিলেন- যারা মানুষকে যাদু
করে ওদেরকে মৃত্যু দন্ডে দন্ডিত কর । হযরত ওমর (রাঃ) এর এ ফরমান পেয়ে আমি নিজ
হাতে দু্ই যাদুকরকে প্রাণদন্ডে দন্ডিত
করেছি ।

No Responses

Write a response