মোবাইল চার্জের অভিজ্ঞতা বদলে দেবে ওয়্যারলেস চার্জার……

মাউস যন্ত্রটির নাম ‘মাউস’ বা ইঁদুর হয়েছিল কেন জানেন? কারণ এর আকৃতি ছিল ইঁদুরের মতো। ইঁদুরের যেমন লেজ আছে মাউসের ওয়্যার বা তারটিও ছিল ইঁদুরের লেজের মতোই!

কিন্তু আরাম প্রিয় মানুষ বেশিদিন এই লেজ পছন্দ করলো না। ফলে গবেষকরা লেগে গেলেন কীভাবে তারবিহীন মাউস আবিষ্কার করা যায়। এর ফলশ্রুতিতেই প্রযুক্তিপ্রিয় মানুষের কাছে চলে আসে তারবিহীন মাউস বা ওয়্যারলেস মাউস। তারই ধারাবাহিকতায় এসেছে ওয়্যারলেস কিবোর্ড।

সুতরাং মানুষ যে মোবাইলের তার যুক্ত চার্জার খুব বেশিদিন পছন্দ করবে না, সেটা জানাই ছিল। ফলে স্যামসাং এবং নেক্সাস মোবাইল কোম্পানি তাদের বিশেষ কিছু ফোনের জন্যে নিয়ে এসেছে ওয়্যারলেস চার্জার। যদিও ওয়্যারলেস বলা হচ্ছে, তবুও এখানে কিছু শুভঙ্করের ফাঁকি আছে। আর তা হলো, এটা মূলত চার্জিং প্যাড। অর্থাৎ আপনার মোবাইলটি একটি নির্দিষ্ট চার্জিং প্যাডে কিন্তু রাখতেই হচ্ছে। যদিও মোবাইলের সঙ্গে সেই চার্জিং প্যাডের কোনো তারের সংযোগ নেই। শুধু আপনার মোবাইলটিকে চার্জিং প্যাডের নির্দিষ্ট জায়গায় রাখতে হবে।

এটা অনেকটা ওয়াই-ফাই প্রযুক্তির মতো কিউআই প্রযুক্তি ব্যবহার করে চার্জ দেয়। ফলে আপনার মোবাইল বা ডিভাইসটিকে কিউআই কম্প্যাটিবল হতে হবে। এ কারণেই এই ওয়্যারলেস চার্জার এখনো ব্যাপকভাবে ব্যবহার হচ্ছে না। আর এটি খুব বেশি জনপ্রিয় না হওয়ার আরেকটি কারণ হতে পারে, এটা তারবিহীন হলেও ব্যবহারের দিক দিয়ে অনেকটা তারযুক্ত চার্জারের মতোই।

কারণ তারযুক্ত চার্জারে যেমন আপনার মোবাইলটিকে একটি নির্দিষ্ট স্থানে রাখতে হয়। তারবিহীন চার্জারেও কিন্তু আপনার মোবাইলটিকে একটি নির্দিষ্ট স্থানেই রাখতে হচ্ছে। তাছাড়া সেই চার্জ প্যাড কিন্তু তার যুক্তই! ফলে নামে আর কাজে কিছু ফারাক তো থাকছেই! তবে এটাও ঠিক, এটা মাত্র শুরু। বলা যায় প্রথম ধাপ। হয়তো খুব বেশিদিন অপেক্ষা করতে হবেনা এমন তারবিহীন চার্জার আসবে যেটা আপনার রুমের যে কোনো স্থান হতে আপনার হাতে রেখেই চার্জ নিতে সক্ষম হবে। আপনাকে মোবাইল আর নির্দিষ্ট স্থানে রাখতে হবেনা। যেটা আক্ষরিক অর্থেই হবে ‘ওয়্যারলেস চার্জার’। আমরা সেই দিনের অপেক্ষায় রইলাম।

No Responses

Write a response