মোটা ও গরিব বানাচ্ছে ফেসবুক!

কি অবাক লাগছে? অবাক লাগার কিছু নেই। যুক্তরাষ্ট্রের গবেষকেরা সম্প্রতি এই তথ্যটিই জানিয়েছেন,ফেসবুক প্রোফাইল আপডেট বা নতুন কোনো ছবি ফেসবুকে দেওয়ার আগে আরেকবার ভাবনার প্রয়োজন পড়তে পারে।

ফেসবুক ব্যবহারকারীদের পকেটের অর্থ খোয়ানো ও শরীরের চর্বি জমানোর জন্যও ফেসবুক দায়ী হতে পারে।
কলাম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকেরা সম্প্রতি জানিয়েছেন, সামাজিক যোগাযোগের ওয়েবসাইট অতিরিক্ত ব্যবহারের ফলে কিছু মানুষের ক্ষেত্রে নিজের জীবনের ওপর নিয়ন্ত্রণ নষ্ট হয়ে যেতে পারে।
কলাম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক কেইথ উইলকস ও পিটসবার্গ বিশ্ববিদ্যালয়ে গবেষক অ্যান্ড্রু স্টিফেন এ প্রসঙ্গে জানিয়েছেন, সামাজিক যোগাযোগের ওয়েবসাইট ব্যবহারের বেশ কিছু ইতিবাচক দিক আছে। এটা মানুষের মনে ভালো কিছু করার স্পৃহা জাগিয়ে তোলে।

সামাজিক যোগাযোগের ওয়েবসাইট ব্যবহারে নিজের সক্ষমতার বোধ তৈরি হয়। সামাজিক যোগাযোগের ওয়েবসাইট ব্যবহারে বন্ধুদের সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

কিন্তু সাময়িক এ স্পৃহা আচরণের ওপর প্রভাব ফেলতে শুরু করে। সাময়িক স্পৃহা পরবর্তীকালে আত্মনিয়ন্ত্রণ কমিয়ে দেয়, যা পরে অনেক নেতিবাচক আচরণ তৈরি করে।
গবেষকেরা জানিয়েছেন, গবেষণায় দেখা গেছে, ফেসবুক ব্যবহারের সময় ব্যবহারকারীরা নানা রসনাবিলাস নিয়ে ব্যস্ত থাকে। তারা যে বেশি খাচ্ছে, তা খেয়াল থাকে না। ফলে শরীরে মেদ জমতে শুরু করে। আবার তাদের আর্থিক সমস্যা প্রকট হয়ে উঠতে পারে, ধারদেনার পরিমাণ বেড়ে যায়।
‘কনজ্যুমার রিসার্চ’ সাময়িকীতে জুন মাসে এ গবেষণাপত্র প্রকাশিত হবে।
গবেষকেরা পরামর্শ দিয়েছেন, সামাজিক যোগাযোগের ওয়েবসাইট ব্যবহারের ক্ষেত্রে তরুণদের অবশ্যই আত্মনিয়ন্ত্রণ থাকতে হবে।

 

আজকে এ পর্যন্ত।ভুল হলে ক্ষমা করবেন।আর সবাইকে আমার ব্লগে ঘুরে আসার আমন্ত্রন রইল    পিসি বাংলাদেশ

One Response

Write a response