মানুষ মঙ্গলে পাঠাবে নাসা, চাঁদে ইসা

পৃথিবীর বাইরে মানুষের বসতি স্থাপনের জন্য বিজ্ঞানীদের প্রচেষ্টার কমতি নেই।

২০৩০ সালের মধ্যে মঙ্গল গ্রহে বসবাসের জন্য মানুষ পাঠাতে যাচ্ছে মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা (নাসা)। অন্যদিকে জানা গেছে, ২০৩০ সালের মধ্যেই চাঁদে বসবাসের জন্য মানুষ পাঠাবে ইউরোপিয়ান স্পেস এজেন্সি (ইসা)।

মঙ্গল গ্রহে মানুষের বসবাসের জন্য নাসার উদ্যোগ ও পরিকল্পনার কথা ইতিমধ্যে সকলেরই জানা। সম্প্রতি ইসা এক ঘোষণায় জানিয়েছে চাঁদে বসবাসের জন্য তারা ২০৩০ সালের মধ্যেই তারা সেখানে মানুষের জন্য বিশেষ ধরনের ঘরবাড়ি নির্মাণ করবে।

এ প্রসঙ্গে ইসা এবং অন্যান্য মহাকাশ গবেষকদের মতে, মঙ্গলের চেয়ে চাঁদে বসবাসের সম্ভাবনা সহজ। কেননা পৃথিবী থেকে মঙ্গল গ্রহের দূরত্ব ৫ কোটি ৫০ লাখ কিলোমিটার। সেখানে যারা যাবে, তাদের নিজেদেরকেই সেখানে টিকে থাকার জন্য লড়াই করতে হবে। তাছাড়া মঙ্গল গ্রহে শুধু পৌঁছাতেই সাত মাসেরও বেশি সময় লাগে। অন্যদিকে চাঁদ হচ্ছে, পৃথিবীর সবচেয়ে কাছের কোনো মহাজাগতিক বস্তু। পৃথিবী থেকে যার দূরত্ব মাত্র তিন লাখ ৮৩ হাজার কিলোমিটার। ফলে কোনো সমস্যা হলে দ্রুত চাঁদ থেকে পৃথিবীতে ফেরত আসা যাবে।

ইসা জানিয়েছে, চাঁদে মানুষের জন্য বাড়ি নির্মাণ করবে থ্রিডি প্রিন্টার রোবট। পৃথিবী থেকে মহাকাশ যানে করে পাঠানো হবে থ্রিডি প্রিন্টার রোবট। বাড়ি নির্মাণের জন্য ইট-বালি-সিমেন্ট কোনো কিছুই নিয়ে যেতে হবে না পৃথিবী থেকে। থ্রিডি প্রিন্টার রোবট চাঁদের মাটি ব্যবহার করেই চাঁদে মানুষের জন্য বাড়ি নির্মাণ করবে।

চাঁদে মানুষের বসবাসের প্রধান অন্তরায় উচ্চ তাপমাত্রা, ক্ষতিকর সৌর-বিকিরণ এবং দীর্ঘমেয়াদি রাতের ঠাণ্ডা। তাই ইসা জানিয়েছে, চাঁদের মাটির খুড়ে তার অভ্যন্তরে ঘরবাড়ি নির্মাণ করা হবে। চাঁদের মাটি ব্যবহার করে ইতিমধ্যে পরীক্ষামূলক ভাবে ঘরবাড়ির স্তম্ভও থ্রিডি প্রিন্টারের সাহায্যে তৈরি করেছে ইসা।

তথ্যসূত্র: দ্য সান

1

No Responses

Write a response