ভোলায় তিন পা বিশিষ্ট বিরলনবজাতকের জন্ম

উপজেলায় তিন পা বিশিষ্ট এক নবজাতক শিশু
ভূমিষ্ট হয়েছে। উপজেলার সাচরা ইউনিয়নের
৬নং ওয়ার্ডের চকিদার বাড়ির বাসিন্দা নুর
মোহাম্মদের স্ত্রী রাজিয়া বেগমের গর্ভে এ
কন্যা সন্তানটি ভুমিষ্ট হয়। বিরল এই
শিশুটিকে এক নজর দেখতে বহু দুর-দুরান্ত থেকে ছুটে আসতে থাকে শত শত মানুষ।
শিশুটির বাবা নুর মোহাম্মদ জানান, ১৭
জুলাই মঙ্গলবার সকাল ৬টায় স্বাভাবিক
ভাবেই নিজ বাড়িতে শিশুটি জন্ম হয়।
শিশুটি ভুমিষ্ট হওয়ার পর থেকেই দেখা যায়
তার হাত-পা সবই ঠিক আছে। কিন্তু মুখ মন্ডলের নিচে অতিরিক্ত একটি পা রয়েছে।
তবে শিশুটি পুরোপুরি সুস্থ্য আছে।
তিনি আরো জানান, শিশুটিকে নিয়ে খুবই
চিন্তায় রয়েছেন। টাকার অভাবে শিশুটির
জন্য ভালো চিকিৎসার
ব্যবস্থা করতে পারছেন না। এদিকে এ খবরটি এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে শিশুটিকে এক
নজর দেখতে বহু দুর-দুরান্ত
থেকে ছুটে আসে শত শত মানুষ।
এব্যাপারে বোরহানউদ্দিন উপজেলা সাস্থ্য
কমপ্লেক্স’র গাইনি চিকিৎসক ডাঃ রজত কুমার
বিশ্বাসের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, গর্ভবতি মায়ের
ডেভলোমেন্টাল এনোমেলির কারনেই অনেক
সময় এ ধরনের শিশুর জন্ম হয়। তবে সঠিক
অস্ত্র পাচারের মাধ্যমে অস্বাভাবিক অঙ্গ
নিঃসরন করতে পারলে এসমস্ত শিশু
স্বাভাবিক ভাবে বেড়ে উঠতে পারে।

No Responses

Write a response