বীরাঙ্গনাদের মুক্তিযোদ্ধা স্বীকৃতি দেয়া হবে

Apel-Mahmud_SwadeshNews24
মুক্তিযুদ্ধের সময় শিল্পী, সাহিত্যিক, চিকিৎসক ও সাংবাদিকসহ নানা পেশার মানুষ নিজেদের জীবনকে বিপদের মুখে ঠেলে দিয়ে নানাভাবে মুক্তিযুদ্ধে অবদান রেখেছিলেন। তাদের সবাইকে মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতি দেয়ার জন্য মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রণালয় কার্যকর পদক্ষেপ নিচ্ছে। এ ছাড়া যে সব মা-বোনেরা সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকার করেছেন সে সব বীরাঙ্গনাদেরও পর্যায়ক্রমে মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতি দেয়া হবে।
স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের শিল্পী আপেল মাহমুদের ‘আপেল মাহমুদ দ্য লিজেন্ড’ এ্যালবামের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে মঙ্গলবার বিকেলে জাতীয় প্রেস ক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে এ সব কথা বলেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক।
প্রকাশনা অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন- স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের শিল্পী নমিতা ঘোষ, অভিনেতা খায়রুল আলম সবুজ, শিল্পী খুরশীদ আলম, এন্ড্রু কিশোর, শাকিলা জাফর, ফাহমিদা নবী, প্রিন্স মাহমুদ, নৃত্যশিল্পী ডলি, সঙ্গীত পরিচালক হাবলু ও জি-সিরিজের কর্ণধার নাজমুল হক ভূঁইয়া খালেদ। উপস্থিত ছিলেন- সামিনা চৌধুরী, ফাহমিদা নবী, রবি চৌধুরী, বিপ্লবসহ আপেল মাহমুদের সতীর্থ ও শুভাকাঙ্খিরা।
বন্ধু ও সহযোদ্ধা আপেল মাহমুদ সম্বন্ধে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক আরও বলেন, আপেল মাহমুদ শুধু একজন শিল্পীই নয়, একজন মুক্তিযোদ্ধাও। স্বাধীনতার পূর্ব ও পরে তার যে অবদান রয়েছে, জাতি তা কোনোদিনই ভুলবে না। এ সময় তিনি আপেল মাহমুদের জনপ্রিয় একটি গানের কথা উল্লেখ করে বলেন, যতদিন বাঙালী থাকবে এবং বাংলাদেশ থাকবে ততদিন পর্যন্ত আপেল মাহমুদ তার সৃষ্টির মধ্য দিয়ে বেঁচে থাকবেন।
মোজাম্মেল হকের মোমবাতি প্রজ্বলনের মধ্য দিয়েই প্রকাশনা অনুষ্ঠানের সূচনা ঘটে। এর আগে সঙ্গীতজ্ঞ ও স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের প্রয়াত শিল্পীদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।

সোর্সঃ ইন্টারনেট

No Responses

Write a response