বাংলাদেশের এক লাখ রান!

f252d33db284892dc173e73926780a14-1-lakh
চাতারার করা ৪০তম ওভারের প্রথম বলটি আলতো করে কাভারে ঠেলে দিয়ে ১ রান নিলেন সাকিব আল হাসান। বিশেষ কোনো উদযাপন হলো না। কিন্তু বাংলাদেশের ক্রিকেটের জন্য বিশেষ একটা মুহূর্ত ছিল এই ১টি রান। এই ১ রানে বাংলাদেশের স্কোর গিয়ে দাঁড়িয়েছিল ১৯৬ রানে। আর তাতেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বাংলাদেশ পূর্ণ করল এক লাখ রান।
আজকের ম্যাচের আগে টেস্ট–ওয়ানডে–টি–টোয়েন্টি মিলে বাংলাদেশ তুলেছিল ৯৯ হাজার ৮০৪ রান। অনুমিতই ছিল, সিরিজের প্রথম ম্যাচেই এক লাখ রানের সেই মাইলফলক স্পর্শ করবে বাংলাদেশ। যদিও শুরুতে ভয়ই পাইয়ে দিয়েছিল। শেষ পর্যন্ত ভয়ের মেঘ তাড়িয়েছে সাকিব–মুশফিকের পঞ্চম উইকেটে বাংলাদেশের পক্ষে রেকর্ড জুটি। ১ লাখ রানের ঘরে পৌঁছাতে ৪১৯টি ম্যাচ খেলতে হলো বাংলাদেশকে।
এর মধ্যে টেস্টে বাংলাদেশ করেছে ৩৯ হাজার ৫৩৫ রান। ওয়ানডেতে আজকের ম্যাচের আগ পর্যন্ত ৫৪ হাজার ৭৩৭ রান। আর টি–টোয়েন্টিতে ৫ হাজার ৫৩২ রান।
টেস্ট ক্রিকেটে বাংলাদেশ সর্বশেষ সদস্য। স্বাভাবিকভাবে বাকি নয়টি দেশ আগেই এক লাখ রানের এই মাইলফলক ছুঁয়েছে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সবচেয়ে বেশি রান ক্রিকেটের সবচেয়ে পুরনো দুই দলের। ১৬৫২ ম্যাচ খেলে ইংল্যান্ড রান করেছে ৬ লাখ ৫৯৮২ । অস্ট্রেলিয়া ১৬৮৭ ম্যাচ খেলে রান তুলেছে ৫ লাখ ৯৭ হাজার ৮২৪।
আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এর পরই রান তোলার দিক দিয়ে আছে ভারত ৪ লাখ ৩৯ হাজার ৫৪৩। ওয়েস্ট ইন্ডিজের রান ৪ লাখ ৮ হাজার ৬২০। আর কোনো দলের চার লাখ রান নেই। তিন লাখ রান আছে পাকিস্তান (৩ লাখ ৭৫ হাজার ৭০৩), নিউজিল্যান্ড (৩ লাখ ২৫ হাজার ৫১৩) এবং দক্ষিণ আফ্রিকার (৩ লাখ ১৯ হাজার ৬২৯)। শ্রীলঙ্কার রান ২ লাখ ৮০ হাজার ৯৪৬। জিম্বাবুয়ের রান আজকের আগ পর্যন্ত ১ লাখ ৩৫ হাজার ৭১১। জিম্বাবুয়ে খেলেছে ৫৬০টি ম্যাচ।

মন্তব্যগুলি

মন্তব্যগুলি

1 Star2 Stars3 Stars4 Stars5 Stars (No Ratings Yet)
Loading...