ফ্রিল্যান্সারদের জন্য বিশেষ ইন্টারনেট নিয়ে ভাবছে সরকার

image

ইন্টারনেট ছাড়া ফ্রিল্যান্সারা
কোন কাজ করতে পারে না। তাই দেশের
ফ্রিল্যান্সারদের জন্য বিটিসিএল বা
টেলিটকের মাধ্যমে বিশেষ কোন ইন্টারনেট
সেবা দেয়া যায় কিনা সেই বিষয় চিন্তা ভাবনা করছে সরকার। এমনি নানা ভাবনার কথা বঙ্গবন্ধ আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে বিল্যান্সের আয়োজিত সেমিনালে শুনালেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক।

তিনি আরও বলেন, ফ্রিল্যান্সারা যেন বিশেষ প্যাকেজ কম ধাপে ইন্টারনেট এবং কোন কোন ক্ষেত্রে ফ্রি ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারে
সেই ব্যবস্থার কথা চিন্তা করছেন তিনি।
ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপার হাসিন হায়দারের এক প্রশ্নের জবারে এই উত্তর জানান
প্রতিমন্ত্রী।

বাংলাদেশের ফ্রিল্যান্সারদের সমস্যা-
সম্ভাবনা ও দেশীয় মার্কেট প্লেস নিয়ে
আইসিটির এক্সপোর শেষ দিন হল অব ফেম-
এ সেমিনারের আয়োজন করে বাংলাদেশের
প্রথম অনলাইন মার্কেট প্লেস বিল্যান্সার।

এতে আউটসোর্সিং বিষয়ে নানা প্রশ্নের
উত্তর এবং প্রশ্নের সমাধান দেয়া হয়।
সেমিনারে মুল বক্তব্য পাঠ করেন
বিল্যান্সারের প্রতিষ্ঠাতা শফিউল আলম।

সেমিনারে মুল বক্তব্য পাঠ করেন বিল্যান্সের প্রতিষ্ঠাতা শফিউল আলম। তিনি বিল্যান্সারের বর্তমান অবস্থা এবং
বাংলাদেশে প্রথম মার্কেট প্লেস হিসাবে এর সম্ভাবনা ও প্রতিবন্ধকতার বিষয়গুলো তুলে ধরেন। এতে দেশের সহস্রাধিক তরুন ফ্রিল্যান্সিং এর আলোচনায় অংশগ্রহন
করেন। ফ্রিল্যান্সিং-এ বিভিন্ন সমস্যাসহ আর্থিক বিষয়ে অংশগ্রহনকারীদের স্বতস্ফূর্ত প্রশ্নের জবাব দেন বিশেজ্ঞরা।

বেসিস সভাপতি বলেন, দেশের সবাই মিলে
সহযোগিতা করলে এক সময় বিল্যান্সের
বিশ্বসেরা আউটসোসিং মার্কেট প্লেসে
পরিনত হবে। এর জন্য প্রয়োজন সবার
সাহায্যে। ড্যাফোডিল আন্তর্জাতিক
বিশ্ববিদ্যালয়েরপ্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালনা
পর্ষদের চেয়ারম্যান সবুর খান বলেন,
বাংলাদেশের মার্কেট প্লেস যদি বড় হয়
তাহলে একদিন পেপাল নিজেই বাংলাদেশে
আসতে আগ্রহ প্রকাশ করবে কারন সে
সম্ভবনা বাংলাদেশের তরুনদের আছে।
আলোচক হিসেবে উক্তি সেমিনারে আরও
উপস্থিত ছিলেন, ডেভেলপার হাসিন হয়দার, বেসিস সভাপতি শামীম আহসান, বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতির সভাপতি বিসিএস এমএইচ মাহফুজুল আরিফ, বিল্যান্সের প্রতিষ্ঠাতা
শফিউল আলম এবং সিটিও ফোরামের
সভাপতি জনাব তপন কান্তি সরকার।

No Responses

Write a response