পরিচালকের প্রতি নবাগতা অমৃতার প্রতারণার অভিযোগ

amritaএবার নির্মাতা ওয়াজেদ আলি সুমনের প্রতি প্রতারণার অভিযোগ আনলেন নবাগতা অমৃতা খান। আগামী ৩ এপ্রিল মুক্তি পাচ্ছে এ নির্মাতার চলচ্চিত্র ‘পাগলা দিওয়ানা’। চলচ্চিত্রটিতে মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন চিত্রনায়িকা পরী মনি ও শাহ রিয়াজ।

অমৃতার অভিযোগ, চলচ্চিত্রটিতে মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করার কথা ছিলো তার। সিনেমায় চুক্তিবদ্ধ করার সময় নির্মাতা তাকে এমনই জানিয়েছিলেন। কিন্তু চলচ্চিত্রটি নির্মাণ কাজ শুরু হলে অমৃতা বুঝতে পারেন চলচ্চিত্রটিতে তাকে সাইড নায়িকা হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে। সোমবার চলচ্চিত্রটি মুক্তির প্রাক্কালে অমৃতা খান তার ফেসবুকে এক স্ট্যাটাসের মাধ্যমে নির্মাতা ওয়াজেদ আলি সুমনের প্রতি প্রতারিত হিসেবে এক অভিযোগ বার্তা প্রদান করেন।
সোমবার অমৃতা তার স্ট্যাটাসে বলেন, নির্মাতা ওয়াজেদ আলি সুমন ও প্রযোজক মিজান সিনেমা শুরুর আগে আমার বাসায় এসে সাইনিং মানি দিয়ে যায়। তারপর বলে এই ছবিতে আমি নাকি মেইন হিরোইন, তারপর আরেক নায়িকাকে কাস্ট করা হবে তিনি সেকেন্ড রোল প্লে করবে। কিন্তু দূর্ভাগ্যবশত যখন শুটিং শুরু করা হয় তখন দুই থেকে তিনদিন শুটিং করার পরে কেন জানি মনে হচ্ছিলো এইখানে আমার সাথে চিটিং করছে। তারপর ডিরেক্টর ওয়াজেদ আলি সুমন ভাইকে বললাম আগেই বলে দেন এই মুভির মেইন হিরোইন কে? তারপর তিনি বললেন, দুইজন নায়িকা, সমান চরিত্রের। ঠিক আছে সেটাও মেনে নিলাম। তারপর দেখলাম সেকেন্ড হিরোইনই থেকে গেলাম।’
পাগলা দিওয়ানা চলচ্চিত্রের একটি দৃশ্যে অমৃতা খান
এ প্রসঙ্গে নির্মাতার ওয়াজেদ আলি সুমন প্রিয়.কমকে বলেন, অমৃতাকে দ্বিতীয় নায়িকা হিসেবেই নেয়া হয়েছিলো। তার সাথে কোন প্রতারণা করা হয়নি। যদি সে অভিযোগ করে প্রতারণা করা হয়েছে তাহলে চলচ্চিত্রটি করলো কেন?’
এ প্রসঙ্গে অমৃতা তার স্ট্যাটাসে বলেন, ‘আমার উচিত ছিলো শ্যুটিং বাদ দিয়ে চলে আসা, এইসব চিটার বাটপারের সঙ্গে কাজ না করা। কিন্তু কি করবো যারা চিটিং করসে তাদের দোষ পড়বে না। একটা ব্যাড রেপুটেশান হবে চিত্রনায়িকা অমৃতা খান শিডিউল ফাঁসায়। আমি ইন্ডাস্ট্রিতে সেকেন্ড হিরোইন হিসেবে কাজ করতে আসিনি।’
অমৃতা অভিয়োগ করেন , শুধু দ্বিতীয় নায়িকা হিসেবেই না পোষ্টারেও তাকে অশ্লীলভাবে প্রদর্শন করা হয়েছে। অমৃতা পোষ্টার থেকে তার ছবি সরিয়ে নেয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন।
এ প্রসঙ্গে নির্মাতা সুমনের কাছে জানতে চাইলে সুমন অমৃতাকে অকথ্য ভাষায় গালি দিয়ে বলেন, ‘ও একটা ফালতু মেয়ে। মানসিক ভাবে অসুস্থ। ’
উল্লেখ্য, এর আগে অমৃতা খান তথ্য প্রমাণ সহ নির্মাতা পি এ কাজলের বিরুদ্ধে চলচ্চিত্রে অভিনয়ের বিনিময়ে অশ্লীল প্রস্তাবের অভিয়োগ এনেছিলেন। এবার নির্মাতা ওয়াজেদ আলি সুমনের বিরুদ্ধে তার প্রতারণার অভিযোগ এলো।
একমাত্র ‘গেম’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে নায়িকা হিসেবে আবির্ভাব ঘটলেও পরবর্তি চলচ্চিত্রগুলোতে তাকে সাইড নায়িকা হিসেবেই চলচ্চিত্রে উপস্থাপন করেছেন নির্মাতারা। এ নিয়ে সম্প্রতি অমৃতা হতাশা ব্যক্ত করেন।
Ref: অমৃতার স্ট্যাটাস

সোর্সঃ ইন্টারনেট

No Responses

Write a response