থ্রিজি’র আগমনে কমলো ইন্টারনেট গ্রাহক!

নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি’র আশা ভঙ্গ করে থ্রিজি সেবা চালুর পরও গত চার মাসে দেশের ইন্টারনেটের গ্রাহক কমেছে আট লাখ ৬৫ হাজার। আর এই ইন্টারনেট গ্রাহক ধসে সবচেয়ে বেশি কমেছে সেলফোনে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা।
images
খোদ বিটিআরসি থেকে প্রকাশিত নিয়মিত প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

বিটিআরসি’র ওয়েবসাইটে প্রকাশিত হালনাগাদ ইন্টারনেট গ্রাহক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মোবাইল অপারেটরসহ সব ইন্টারনেট সেবাদানকারী কোম্পানির জমা দেয়া হিসাব অনুযায়ী ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত দেশে মোট তিন কোটি ৫৭ লাখ ৯০ হাজার ১৪৬ জন ইন্টারনেট গ্রাহক রয়েছে।

গত ৩১ আগস্ট পর্যন্ত ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর প্রতিবেদনের এই সংখ্যা ছিল তিন কোটি ৬২ লাখ ৪৯ হাজার ১৮ জন। এর আগে ৩০ জুন পর্যন্ত দেশে ইন্টারনেট গ্রাহক ছিল তিন কোটি ৫৬ লাখ ৩১ হাজার ২৬৯ জন।
অর্থাৎ হিসাব অনুযায়ী, গত চার মাসে দেশে মোট ইন্টারনেট গ্রাহক কমেছে চার লাখ ৫৮ হাজার ৮৭২ জন।

প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, মোট ইন্টারনেট গ্রাহক কমার হারে সবচেয়ে বেশি কমেছে সেলফোনে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা। গত ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত মোবাইলে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা ছিল তিন কোটি ৪২ লাখ ৪৯ হাজার ৭৩১ জন। কিন্তু আগস্টে মোবাইলে ইন্টারনেট ব্যবহারকারী ছিল তিন কোটি ৪৭ লাখ ১১ হাজার ১০১ জন।

অর্থাৎ চার মাসের ব্যবধানে মোবাইল ইন্টারনেট গ্রাহক কমেছে চার লাখ ৬১ হাজার ৩৭০ জন।

অপরদিকে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত আইএসপি ও পিএসটিএন ১২ লাখ ২২ হাজার ৬২০ জন এবং ওয়াইমেক্স ব্যবহারকারীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে তিন লাখ ১৫ হাজার ২৯৭ জন। অথচ আগস্টে আইএসপি ও পিএসটিএন ১২ লাখ ২২ হাজার ৬২০ জন এবং ওয়াইম্যাক্স ব্যবহারকারীর সংখ্যা ছিল তিন লাখ ১৫ হাজার ৭৯৫ জন।

সর্বশেষ গ্রাহক প্রতিবেদন অনুযায়ী, ডিসেম্বর মাস শেষে গ্রামীণফোনের গ্রাহক সংখ্যা দাঁড়িয়েছে চার কোটি ৭১ লাখ ১০ হাজার। দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা বাংলালিংকের দুই কোটি ৭৬ লাখ ৯৪ হাজার। রবি আজিয়েটার মোট গ্রাহক রয়েছে দুই কোটি ৫৩ লাখ ৮০ হাজার। এছাড়াও এয়ারটেল ৮২ লাখ ৬৯ হাজার, সিটিসেল ১৩ লাখ ৬৫ হাজার এবং টেলিটকের গ্রাহকসংখ্যা ২৮ লাখ ২২ হাজার।

1

No Responses

Write a response