ত্বক ও চুলের যত্নে আলু

potatoes_largeআলু একটি সুষম খাদ্য। আলুতে রয়েছে ভিটামিন ‘এ’, পটাশিয়াম, আয়রণ, অ্যান্টি-অক্সাইড ও ফাইবারসহ প্রচুর পরিমাণে কার্বোহাইড্রেট।

আলু শুধু খাদ্য হিসেবে নয়, ত্বক ও চুলের জন্যও এটি অনেক উপকারী। ত্বকের কালো দাগ, রোদে পোড়া দাগ, বলিরেখা, চোখের নিচে কালো দাগ, বয়সের ছাপ দূর করে। এছাড়াও এটি চুল পড়া, চুলের রুক্ষতা দূর করতে সাহায্য করে।

আসুন কিভাবে ত্বক ও চুলের যত্নে আলু কিভাবে ব্যবহার করা যায় তা জেনে নেয়া যাক-

ত্বকের যত্নে:
• আলুর ঠান্ডা রস নিয়মিত ত্বকে লাগালে ত্বকের ছোপ ছোপ দাগ, রোদে পোড়া ভাব দূর হয়। একই সঙ্গে ত্বক উজ্জ্বল হয়।

• আলুর রসে তুলা ভিজিয়ে চোখের নিচে লাগিয়ে রস শুকানো পর্যন্ত রেখে দিয়ে চোখ ধুয়ে ফেলতে হবে। এতে চোখের নিচে কালো দাগ কমে যায়।

• আলুর রসের সঙ্গে লেবুর রস মিশিয়ে শরীরের যেখানে কালো দাগ আছে সেখানে ১০ মিনিট লাগিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। এতে কালো দাগ ধীরে ধীরে চলে যাবে।

• বার্ধক্যের ফলে চোখের কুঁচন দূর করতে আলুর রসের সঙ্গে অলিভ অয়েল মিশিয়ে চোখের নিচে ও কোণায় প্রতিদিন ৫ মিনিট লাগিয়ে রাখতে হবে।

• বলি রেখা, হাইড্রেশন ও বয়সের ছাপ ঠিক করতে আলুর রসের সঙ্গে দই মিশিয়ে মুখে লাগিয়ে রাখতে হবে অন্তত ১০ মিনিট।

• আলুর রস ও শসার রস একত্রে মিশিয়ে মুখে ও চোখে লাগালে ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়বে এবং চোখের ফোলা ভাব কমে যাবে।

• শুষ্ক ত্বক অনেক সময় লোশন বা ময়শ্চারাইজারের ডাকে সাড়া দেয় না। এক্ষেত্রে প্রতিদিন এক গ্লাস আলুর রস পান করতে হবে। এই রস শরীরের টক্সিন থেকে আপনাকে রক্ষা করবে।

চুলের যত্নে:
• চুলের বৃদ্ধি ত্বরান্বিত করতে আলুর রস, ডিমের সাদা অংশ, ১ চা চামচ মধুর সঙ্গে মিশিয়ে চুলে লাগিয়ে রাখুন ২ ঘন্টা। পরে শ্যাম্পু করে ফেলতে হবে।

• চুল কালো ও পেকে যাওয়া চুলকে আগের অবস্থায় ফিরিয়ে নিতই আলু সিদ্ধ করে নিতে হবে। শ্যাম্পু করার পর এই সিদ্ধ করা পানি দিয়ে চুল ধুয়ে নিতে হবে। নিয়মিত এটি করতে হবে।

• ২ চা চামচ আলুর রস, ২ চা চামচ অ্যালোভেরা জেল, ও ১ চা চামচ মধু মিশিয়ে মাথার ত্বকে ও চুলে লাগাতে হবে। ২ ঘন্টা পর চুলে শ্যাম্পু করতে হবে। সপ্তাহে ২ বার এটি করলে চুল পড়া কমে যাবে।

এছাড়া ওজন কমানোর জন্যও আলুর রস খেতে পারেন। এক্ষেত্রে প্রতি সকালে নাস্তা করার ২-৩ ঘন্টা আগে আলুর রস খালি পেটে খেতে এবে।

এক্ষেত্রে যে বিষয়গুলো অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে:
• গায়ে ছোপ দাগ ছাড়া ও নতুন আলু ব্যবহার করবেন।
• পেটে সমস্যা থাকলে আলুর রস পান করা যাবে না।
• আলুর রসে স্বাদ বাড়ানোর জন্য এতে পুদিনা পাতা, মধু, লেবুর রস বা গাজরের রস মিশিয়ে নিতে পারেন।
• আলুর রস খেলে ডায়রিয়া হতে পারে।
• অনেক সময় আলু ভালো না হলে এর রস ব্যবহারে ত্বকে চুলকানি হতে পারে। এতে ঘাবড়ানোর কিছু নেই। এ রকম হলে কয়েকদিন বিরতি নিয়ে আবার ব্যবহার করতে পারেন। তবে খেয়াল রাখবেন যে আলু ব্যবহার করছেন তা যেন তাজা হয়।

সোর্সঃ ইন্টারনেট

No Responses

Write a response