টক শোতে উত্তপ্ত শামীম-আইভী

টক শোতে উত্তপ্ত শামীম-আইভী মঙ্গলবার রাতে একাত্তর টেলিভিশনের টক শো-তে মুখোমুখি হয়ে উত্তপ্ত বিতণ্ডায় জড়িয়েছেন নারায়ণগঞ্জের সংসদ সদস্য এ কে এম শামীম ওসমান ও মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভী।

সাত খুনের পেছনে নারায়ণগঞ্জের ‘গডফাদারদের’ দায়ী করে আইভী যে বক্তব্য দিয়েছেন তার ব্যাখ্যায় আইভী বলেন, গডফাদার বলতে তিনি শামীম ওসমানকে বুঝিয়েছেন।

“গডফাদার বলতে কাকে বুঝাচ্ছি সে তো এখানে বসেই আছে, তাকেই বুঝাচ্ছি। নারায়ণগঞ্জের গডফাদার একজনই সেটা এ কে এম শামীম ওসমান এবং তার সৃষ্টি আরো কিছু গডফাদার।” র‌্যাব এ হত্যাকাণ্ড ঘটালেও এর পেছনে ওই ‘গডফাদাররা’ রয়েছেন দাবি করেন মেয়র আইভী।

তার অভিযোগ খণ্ডন করতে গিয়ে শামীম ওসমান বলেন, “যাকে আমি দেখি করাপশনের একজন নায়িকা হিসেবে তাকে অ্যাটাক করে বক্তব্য দিতে চাই না। এটা আমার রুচিতে বাধে। “প্রতিটি জিনিসের একটা সৌজন্যতা, একটা ভদ্রতা, কথা বলার স্টাইল-সব কিছুর মধ্যে একটা মানুষের ব্লাডের পরিচয় পাওয়া যায়।”

শামীম ওসমান বলেন, “আপনারা বইলা আনছেন এক গেস্টের নামে, আনছেন আরেক গেস্ট। কথাও শেষ করতে দিবেন না- তাহলে তো হবে না ভাইজান।”

এ সময় সঞ্চালকের কাছে আইভী জানতে চান, অন্যের (আলোচক) কথা বলে শামীম ওসমানকে এই অনুষ্ঠানে আনা হয়েছে কি না।

‘হ্যাঁ’ সূচক উত্তর পেয়ে চলে যাওয়ার জন্য উঠে দাঁড়ান আইভী। এ সময় সঞ্চালকের সঙ্গে পাশ থেকে কথা বলে যাচ্ছিলেন শামীম ওসমান।

সঞ্চালককে জবাবদিহির এক পর্যায়ে শামীমকেও ‘মিথ্যাবাদী’ বলেন আইভী।

এ সময় শামীম বলে ওঠেন, “তুমি উঠে যাচ্ছ উঠে যাও, বেয়াদবি করো না।”

তারপর উত্তেজিত কণ্ঠে পাল্টা শামীম ওসমানকে ‘বেয়াদব’ বলেন আইভী। আইভী আবারো বসেন এবং আলোচনাও চালিয়ে যান তারা।

তবে অনুষ্ঠানের বিরতির মধ্যেও তাদের বদানুবাদ চলছিল বলে ওই অনুষ্ঠানে অংশ নেয়া তৃতীয় আলোচক গোলাম মোর্তজা জানিয়েছেন। তিনি তার ফেইসবুক স্ট্যাটাসে লিখেছেন, “বেশ কয়েকবার শামীম-আইভী বিরতিতে যেভাবে উত্তেজিত বাক্য বিনিময় করেছেন, শামীম ওসমান আইভীকে প্রায় আক্রমণ করতে উদ্যত হয়েছেন, তাতে স্টুডিওতে ভীতিকর পরিবেশ তৈরি হয়েছিল।

“শামীম ওসমান আইভীকে বলেছেন, ‘তুই নারায়ণগঞ্জে চল, তোরে দেখাইতেছি …।’ আইভী বলেন, ‘চল নারায়ণগঞ্জে …কী করবি?”

“অনুষ্ঠান শেষে কিছু একটা বলে আইভী যখন বের হয়ে যাচ্ছিলেন তখন তিনি (শামীম) মারতে ছুটে যাচ্ছিলেন। তাকে ধরে ঠেকানো হয়। বিরতিতে আমার উপর যেভাবে ক্ষিপ্ততা দেখিয়েছেন, ব্যক্তিগত আক্রমণ করেছেন, তাতে যে কারোরই ভয় পাওয়ার কথা।”

মন্তব্যগুলি

মন্তব্যগুলি

1 Star2 Stars3 Stars4 Stars5 Stars (No Ratings Yet)
Loading...