জেনে নিন বর্তমানের সেরা ১০টি কোড ইডিটর সর্ম্পকে, এবং বেছে নিন আপনার পছন্দের একটি!

ভালোকিছু তৈরী করার জন্য প্রথমে প্রয়োজন সৃজনশীল চিন্তা এবং তারপরে প্রয়োজন সেই চিন্তাকে বাস্তবায়ন করার জন্য উপযুক্ত উপকরণ। এর কোনটা ছাড়া কোনটি সম্ভব না। মনে করি, আপনি একটা নৌকা বানাবেন ভাবছেন। তাহলে তার জন্য কি প্রয়োজন হতে পারে? কাঠমিস্ত্রি, প্রয়োজনীয় কাঠ এবং পেরেক সংগ্রহ করে ফেললেন আপনি। চিন্তা করে উত্তর দিন তো, নৌকা তৈরী হতে আর কি কিছু বাকি আছে? অনেকেই হয়তো ভাবছেন সবই তো আছে তাহলে এখন নৌকা তৈরী হয়ে যাবে নিশ্চয়। আসলে কিন্তু তা নয়, কারন নৌকা তৈরী করতে মিস্ত্রির জন্য প্রয়োজন হবে একটা কার্যকর টুলবক্স। নৌকা তৈরীতে মিস্ত্রি এবং টুলবক্সের অবদান ৫০-৫০ ভাগ। এখন টুলবক্সের ফাংশনালিটি যতো বেশি হবে কাজ ততো সুন্দর এবং দ্রুত শেষ হবে। একজন প্রোগ্রামার কিংবা ডেভেলপারের কাছেও কোড এডিটর এরকম একটা বিষয়। আপনি যতো বড় কোডার হয়ে থাকুন না কেন, আপনাকে যদি উইন্ডোজের ডিফল্ট কোড এডিটর নিয়ে কাজ করতে বলা হয় তাহলে ১০০ লাইন কোড লিখতেই আপনার ঘাম ছুটে যাবে। তাই কাজের সফলতার জন্য প্রয়োজন ভালো একটি কোড এডিটর। আজকের টিউনে আমরা বিশ্বের সেরা দশটি কোড এডিটর বিষয়ে জানবো যেগুলো ব্যবহারে আপনার কাজে নিপুনতা আসার পাশাপাশি আপনি ব্যবহারে স্বস্থিও পাবেন। তো চলুন তাহলে নাম্বার ভিত্তিক সফটওয়্যারগুলো সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

1. Atom – এটম

গিটহাব প্রজেক্টের অন্যতম আবিষ্কার এই অসাধারন কোড এডিটর। পরিচিত এডিটরগুলোর চাইতে তুলনামূলক নতুন হলেও এটি খুব অল্প সময়ে তার অনন্য ফিচারের সাহায্যে অন্য সব এডিটরকে পেছনে ফেলে সবার উপরে অবস্থান করছে। সফটওয়্যারটি সম্পূর্ণ ফ্রি, ওপেন সোর্স এবং হাইলি কাস্টমাইজেবল। এতে রয়েছে ৫০টি ওপেন সোর্স প্রজেক্ট যা আপনাকে এমন ভাবে সফটওয়্যারটি ব্যবহার করতে সহযোগিতা করবে, ঠিক যেমনটি আপনি চান। এক নজরে দেখে নিন গুরুত্বপূর্ণ ফিচারগুলো। বাংলার চাইতে ইংরেজি বুঝতেই আপনাদের বেশি সুবিধা হবে মনে করে ফিচারগুলো অনুবাদ করে দিলাম না। আশা করি আপনাদের বুঝতে কোন সমস্যা হবে না।

সম্পূর্ণ ফ্রি এই সফটওয়্যারটি সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন। আর এক ক্লিকে ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন

2. UltraEdit – আল্ট্রা এডিট

এই সফটওয়্যারটি কয়েক বছর থেকে বিভিন্ন সেরা প্লাটফর্ম থেকে সেরা নির্বাচিত হয়ে আসছে। IDM কম্পিউটার সল্যুশনের তৈরী এই সফটওয়্যারটিতে রয়েছে কম্পিউটার এবং ওয়েব প্রোগ্রামিং এনভাইরনমেন্ট। মাইক্রোসফট কর্পোরেশন থেকেও সফটওয়্যারটিকে সেরা কোড এডিটর ঘোষনা করা হয়েছিলো। সফটওয়্যারটিতে রয়েছে অসংখ্য ফিচারের এক অনন্য কম্বিনেশন যা ব্যবহারকারীদেরকে এর প্রেমে পড়তে বাধ্য করবে। ক্রমাগত উন্নতির দিকে ধাবমান এই সফটওয়্যারটির ফুল ফিচার নিচে থেকে এক নজরে দেখে নিন।

সফটওয়্যারটি সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন এবং প্রিমিয়াম হওয়া সত্ত্বেও সম্পূর্ণ ফ্রিতে ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন

3. Sublime Text – সাবলাইম টেক্সট

সাবলাইম টেক্সট এডিটর বর্তমান সময়ে অত্যাধিক জনপ্রিয় একটি টেক্সট এডিটর। আমি ব্যক্তিগত ভাবে এর অনেক বড় একজন ভক্ত। কোডিং এর জন্য সাবলাইম টেক্সট ছাড়া আমি অন্য কোন কিছুকেই ভাবতে পারিনা। নিজস্ব কাস্টমাইজেশন সুবিধা, প্রয়োজনের অতিরিক্ত প্লাগিন, অসাধারন ইন্টারফেইস, সব মিলিয়ে সাবলাইম টেক্সট অসাধারন একটি কোড এডিটর। ৭০ ডলার মূল্যের সফটওয়্যারটির সম্পূর্ণ ফিচারগুলো জানতে নিচে দেখুন।

সাবলাইম টেক্সট সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন। আর যদি আপনার পিসির জন্য ফুল ভার্সন ডাউনলোড করতে চান তাহলে এখানে ক্লিক করুন

4. Notepad++

নোটপ্যাড++ বহুল ব্যবহৃত কোড এডিটর। যারা টাকা খরচ করে অধিক ফিচারের কোড এডিটর কিনতে আগ্রহী না কিংবা যারা ফ্রিওয়্যার ভালোবাসেন তাদের জন্য নোটপ্যাড++ খুব প্রয়োজনীয়। বাংলাদেশের অধিকাংশ ওয়েব ডেভেলপার এই সফটওয়্যারটি ব্যবহার করেন। খুবই সিম্পল এবং সহজ ব্যবহার উপযোগী এই সফটওয়্যারটি তাই ৪ নাম্বার স্থানটি দখল করে আছে। নিচে এক নজরে দেখে নিন কিছু গুরুত্বপূর্ণ ফিচার।

নোটপ্যাড++ সম্পর্কে জানতে এবং ডাউনলোড করতে তাদের অফিশিয়াল সাইট দেখতে পারেন এখান থেকে

5. CoffeeCup (HTML Editor or Web Editor)

CoffeeCup হলো একটি জনপ্রিয় HTML এডিটর। সাধারনত এডভান্স HTML/CSS প্রজেক্টের জন্য এই টুলসটি ব্যবহার করা হয়। একজন ডেভেলপারের ওয়েব এডিটিং এর জন্য যা কিছু প্রয়োজন সব কিছু পাবেন এখানে। ফিচারগুলো নিচে থেকে এক নজরে দেখে নিন। সফটওয়্যারটি সম্পূর্ন ফিচারসহ ব্যবহার করতে হলে আপনাকে এর জন্য মাত্র ৬৯ ডলার গুনতে হবে।

সফটওয়্যারটি সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

6. BBEdit – বিবি এডিট

শুধুমাত্র ম্যাক প্লাটফর্মের জন্য ব্যবহৃত এটি একটি জনপ্রিয় কোড এডিটর। সম্পূর্ণ ওয়েব প্রোগ্রামিং জন্য ব্যবহৃত এই সফটওয়্যারটি ম্যক ব্যবহারকারীদের জন্য HTML & CSS প্রজেক্ট ভিত্তিক ওয়েব পেইজ তৈরী, এডিটিং, ম্যানুপুলেটিং এ ব্যাপক সহায়ক। কী-ফিচারগুলো নিচের লিস্ট থেকে দেখে নিন।

ম্যাক ব্যবহারকারীরা সফটওয়্যারটি ব্যবহার করতে চাইলে মাত্র ৪৯.৯৯ ডলারের বিনিময়ে সম্পূর্ণ ফিচারগুলো ব্যবহার করতে হবে। সফটওয়্যারটি সম্পর্কে আরো বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

7. Bluefish – ব্লুফিশ (নীলমাছ)

Bluefish সফটওয়্যারটি মাল্টিপারপাস কোড এডিটিং এর কাজে ব্যবহৃত হয়। সফটওয়্যারটি একাধারে কম্পিউটার প্রোগ্রামার এবং ওয়েব ডেভেলপারদের চাহিদা মিটিয়ে আসছে। সেরা কোড এডিটরের লিস্টে ৭ নাম্বারে থাকা এই সফটওয়্যারটির গুরুত্বপূর্ণ ফিচারগুলো নিচের লিস্ট থেকে দেখে নিন।

সম্পূর্ণ ফ্রি এবং প্রায় সকল প্লাটফর্মে ব্যবহার উপযোগী এই সফটওয়্যারটি সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

8. Brackets – ব্রাকেটস

Brackets হলো ক্রমাগত জনপ্রিয়তার শীর্ষগামী একটি অনন্য কোড এডিটর। অন্যান্য এডিটরগুলোর তুলনায় একটু নতুন হলেও এটি তার ফিচারগুলোর দ্বারা খুব দ্রুত জনপ্রিয়তার শীর্ষে অবস্থান করবে বলে আমার বিশ্বাস। অসাধারন সব প্লাগিন, সুন্দর ইন্টারফেইস, সহজ ব্যবহারবিধি ভালো লাগলেও এর অনন্য ফিচার হলো এটা PSD থেকে তার স্টাইল ইনফোরমেশন গুলো এক্সট্রাক্ট করতে পারে। সে সুবিধা অন্য এডিটরগুলোতে নেই। নিচের গুরুত্বপূর্ণ ফিচারগুলো এক নজরে দেখে নিলেও ব্যবহার না করলে কোনদিন বুঝবেন না যে কোড এডিটরের সুবিধা কোথায় গিয়ে পৌছাতে পারে।

সম্পূর্ণ ফ্রি এই সফটওয়্যারটি সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে এবং ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন

9. Coda – কোডা

Coda হলো ম্যাক এবং iOS প্লাটফর্মের জন্য আলাদিনের প্রদীপের মতো। আপনার যা চাই ঠিক তাই আছে এই সফটওয়্যারটিতে। অসাধারন ডিজাইন, নিয়মিত আপডেট, সহজ ব্যবহার সব মিলিয়ে এটা ম্যাক ব্যবহারকারীদের জন্য অন্যতম পছন্দের সফটওয়্যার। লিন্ডা কিংবা টিউটপ্লাসের ভিডিও টিউটরিয়ালগুলোতে দেখবেন কোডা খুব বেশি ব্যবহৃত হয়। দুঃখের কথা এই অসাধারন সফটওয়্যারটি শুধুমাত্র অ্যাপল প্রোডাক্টে ব্যবহার করা যায়। ফিচারগুলো এক নজরে দেখে নিন।

৯৯ ডলার মূল্যের এই সফটওয়্যারটি সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

10. ICEcoder

ICEcoder হলো একটি ব্রাউজার বেইজড কোড এডিটর। তারমানে আপনি সরাসরি ব্রাউজার ব্যবহার করে অফলাইন কিংবা অনলাইনে কোড এডিট করতে পারবেন। বিভিন্ন ওয়েব প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ সাপোর্টের এই কোড এডিটরের স্প্যাশাল ফিচারগুলো নিচে থেকে এক নজরে দেখে নিন।

সম্পূর্ণ ফ্রি এই কোড এডিটরটি সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এবং ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন

শেষ কথা

আমরা টিউনটির একেবারে শেষ পর্যায়ে চলে এসেছি। প্রত্যেকটা সফটওয়্যার বিষয়ে অতি সংক্ষিপ্ত কিছু বর্ণনা আজ আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম। কিন্তু সফটওয়্যারগুলো ব্যবহারে আপনারা বুঝতে পারবেন কোনটা আপনাদের সাথে খুব বেশি মিলে যায়। আপনার পছন্দের কোড এডিটর বিষয়ে আমাকেও জানাতে পারেন। যাতে পরবর্তি সময়ে আমরা আরও কিছু করতে পারি। তবে যাইহোক, টিউনটি যদি আপনাদের ভালো লেগে থাকে অথবা বুঝতে যদি কোন রকম সমস্যা হয় তাহলে আমাকে টিউমেন্টের মাধ্যমে জানাতে ভুলবেন না। কারন আপনাদের যেকোন মতামত আমাকে সংশোধিত হতে এবং আরো ভালো মানের টিউন করতে উৎসাহিত করবে।

1

No Responses

Write a response