জন্মদিনে মায়ের কথা বেশি মনে পড়ে

imagesআমার এ দু’টি চোখ পাথর তো নয়, নেশার লাটিম ঝিম ধরেছে, বন্ধু হতে চেয়ে তোমার, আমি বৃষ্টির কাছ থেকে কাঁদতে শিখেছি- অসাধারণ এ গানগুলোর কথা উঠলেই যে নামটি অবধারিতভাবে চলে আসে তিনি নন্দিত সংগীতশিল্পী সুবীর নন্দী। গানের সঙ্গে দীর্ঘ বছর জড়িয়ে রয়েছেন এ গুণী মানুষটি। আর দুর্দান্ত সব গান গেয়ে দেশের সংগীতাঙ্গনকে করেছেন দারুণভাবে সমৃদ্ধ। আজকের দিনেই পৃথিবীর আলো দেখেছিলেন সুবীর নন্দী। আজ তার জন্মদিন। বিশেষ এদিনে বরাবরই বাসায় সময় কাটান তিনি। এবারও তার ব্যতিক্রম ঘটবে না। তবে বাসায় থাকলেও জন্মদিনকে ঘিরে তার রয়েছে নানা পরিকল্পনা। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, জন্মদিনে প্রতি বছরই সকাল থেকে আত্মীয়স্বজন ও বন্ধুরা সবাই বাসায় আসেন। বিশেষ খাওয়া-দাওয়ার আয়োজন থাকে। অবশ্য সবাই এলেও আমি প্রতি বছর যেটা করি তা হলো- দিনের যে কোন ভাগে মন্দিরে গিয়ে হাজির হই। সেখানে প্রার্থনা করতে যাই। মা-বাবা সবার জন্য প্রার্থনা করি। এবারও তাই করবো। এরপর বাসায় ফিরেই আবার সবার সঙ্গে সময় কাটাবো। এরপর বিকালের দিকে বাসার সবাই মিলে বেড়াতে যাওয়ার পরিকল্পনাও রয়েছে। যে মা এ শিল্পীকে জন্ম দিয়ে পৃথিবীর আলো দেখিয়েছেন তাকে এ দিনটিতে কিভাবে স্মরণ করেন জানতে চাইলে সুবীর নন্দী বলেন, মায়ের কথা তো প্রতিটি মুহূর্তেই মনে পড়ে। আর সন্তান হিসেবে তাকে প্রতিনিয়ত স্মরণ রাখাটাই স্বাভাবিক। বিশেষত আমার জন্মদিনে মায়ের কথা বেশি মনে পড়ে। মা বেঁচে থাকতে এ দিনটিতে আমার জন্য শিঙ্গাড়া বানাতেন। ওই সময় খুব মজা করে খেতাম। এখনও মায়ের হাতের তৈরি শিঙ্গাড়া যেন মুখে লেগে আছে। অবশ্য এখনও বাসায় আমার জন্মদিনে এ খাবারটি তৈরি করা হয়। এখন আমার মেয়েই মায়ের সে দায়িত্ব পালন করে। আজও সেসব আয়োজন করবে। গেল বছর জন্মদিন উপলক্ষে চ্যানেল আইতে সুবীর নন্দীকে নিয়ে বিশেষ আয়োজন করা হয়েছিল। আজও তেমনটা হবে বলে জানান তিনি। চ্যানেল আইয়ের ‘তারকাকথন’ অনুষ্ঠানে আজ তিনি উপস্থিত থাকবেন। উল্লেখ্য, এদিকে এ বছরই নন্দিত এ শিল্পীর দু’টি অ্যালবাম বাজারে এসেছে। নন্দিত এ শিল্পীর জন্মদিনে মানবজমিন-এর পক্ষ থেকে রইল অনেক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন।

Posted by Ab Emon

সোর্সঃ ইন্টারনেট

No Responses

Write a response