চলচ্চিত্র নিয়ে দ্বন্দ্বে মৌসুমী

mosumi swadesg24দর্শকপ্রিয় অভিনত্রেী মৌসুমী নাগ চলচ্চিত্রে অভিনয় নিয়ে দ্বিধা-দ্বন্দ্বে ভুগছেন। ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই তার চলচ্চিত্রে অভিনয়ের সুপ্ত বাসনা ছিল। সেই লক্ষ্যকে সামনে রেখে পথ চলেছেন তিনি। কিন্তু কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে এখনো পেঁৗছাতে পারেননি। ছোটপর্দার মতো বড়পর্দায় স্থায়ী আসন করে নিতে পারেন কিনা, তা নিয়ে মাঝেমধ্যেই সংশয়ে ভুগছেন তিনি। এরই মধ্যে মৌসুমী শাহরিয়ার নাজিম জয়ের ‘প্রার্থনা’ ছবির শুটিং সম্পন্ন করেছেন। বর্তমানে এ ছবির ডাবিংয়ের কাজ চলছে। এছাড়া তন্ময় তানসেনের ‘রান আউট’ ছবির কাজও শেষ করেছেন। শিগগিরই ছবিটি সেন্সরে জমা দেয় হবে। এ প্রসঙ্গে মৌসুমী নাগ বলেন, ‘চলচ্চিত্র নিয়ে আমার বড় একটি পরিকল্পনা রয়েছে। তবে তা নির্ভর করছে আমার অভিনীত ছবি দুটির সাফল্য-ব্যর্থতার ওপর। এ দুটি ছবি ব্যবসায়িক সফলতা পেলে চলচ্চিত্রে নিয়মিত কাজ করব। তাই এখন ছবি দুটির মুক্তির দিকেই তাকিয়ে আছি।’ তিনি আরো বলেন, ‘তবে এ ছবি দুটিতে আমি আমার অভিনয়ের সব মেধা, মনন ও সৃজনশীলতা প্রয়োগ করার চেষ্টা করেছি। পরিচালকরাও আমার অভিনয় নিয়ে খুশি। আশা করছি, দর্শকরাও দুটি ছবিই পছন্দ করবেন।’ নতুন কোনো ছবির প্রস্তাব আসছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘মাঝেমধ্যেই ছবির প্রস্তাব পাচ্ছি। কিন্তু এ ছবি দুটি মুক্তি না পাওয়া পর্যন্ত নতুন কোনো ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হওয়া ঠিক হবে না। মোটকথা প্রার্থনা ও রানআউট দর্শকদের মন জয় করতে পারলেই কেবল নতুন ছবি হাতে নেব। তা না হলে ছোটপর্দায় নিয়েই পড়ে থাকব’।
বর্তমানে মৌসুমী নাগ ছোটপর্দার কাজ নিয়েই ব্যস্ত রয়েছেন। বিশেষ করে ‘দলছুট প্রজাপতি’ ধারাবাহিকটির নিয়মিত শুটিং করছেন তিনি। ধারাবাহিকটি ২২ নভেম্বর থেকে এনটিভিতে প্রচার শুরু হবে। মৌসুমী জানান, এছাড়া তিনি আরো ৪-৫টি ধারাবাহিকে অভিনয় করছেন। ধারাবাহিকগুলো বিভিন্ন চ্যানেলে প্রচার হচ্ছে। অরুণা বিশ্বাসের পরিচালনায় ‘সুরে অাঁকা ছবি’ শিরোনামে ধারাবাহিক নাটকের মাধ্যমে মৌসুমীর অভিনয় যাত্রা শুরু হয়। ২০০৬ সালে ধারাবাহিকটি প্রচার হওয়ার পর তার অভিনয়ের গুণাবলি চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে। এরপর প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান যাত্রাভিশন থেকে কয়েকটি ধারাবাহিকে কাজ করেন মৌসুমী। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে মিঠু বিশ্বাসের ‘আনন্দ সংবাদ’, অরুণা বিশ্বাস ও মিঠু বিশ্বাসের যৌথ পরিচালনায় ‘বড়দিদি’ ইত্যাদি। রবীন্দ্রনাথের জন্মদিন উপলক্ষে কবিগুরুর ‘দৃষ্টিদান’ গল্প নিয়ে একই বছর চারটি নাটক তৈরি হয়। ওই চারটি নাটকেই মৌসুমী অভিনয় করেছিলেন। নাটকগুলো দারুণ দর্শকপ্রিয়তা অর্জন করে। এরপর থেকে মৌসুমীকে আর পিছু ফিরতে হয়নি।

সোর্সঃ ইন্টারনেট

No Responses

Write a response