গিনেস বুক অফ ওয়াল্ড রেকডস>>কথার রানী

এই পোস্ট 5 of 24 পর্বে অন্তর্ভুক্ত গিনেস বুক অফ ওয়াল্ড রেকডস



মেয়েরা নাকি কথা একটু বেশিই
বলে! কিন্তু ‘কথার রানি’ অবলীলায়
হারিয়ে দেবেন তাবৎ
নারী জাতিকে। ফ্রান ক্যাপো ৫৪
দশমিক ২ সেকেন্ডে বলতে পারেন
৬০৩টি শব্দ। পৃথিবীর সবচেয়ে দ্রুত
কথা বলিয়ে নারী হিসেবে এরই
মধ্যে তিনি নাম লিখিয়েছেন
রেকর্ড বইয়ে। কত দ্রুত
কথা বলেন_হিসাব কষেছে গিনেস
বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস_গড়ে প্রতি সেকেন্ডে ফ্রান
বলতে পারেন ১১টি শব্দ!
অন্য রকমের এই ক্ষমতার জোরে আজ
পর্যন্ত হাজির হয়েছেন ২৫০টিরও
বেশি টিভি অনুষ্ঠানে। অংশ
নিয়েছেন এক হাজারেরও বেশি রেডিও অনুষ্ঠানে। কত
ইন্টারভিউ যে দিয়েছেন,
ইয়ত্তা নেই। মজার ব্যাপার হলো,
যে বিশ্বরেকর্ডের জন্য এত
খ্যাতি লাভ করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের
নিউ ইয়র্ক শহরের ফ্রান, সেটি তাঁকে গড়তে হয়েছে দু-দুবার।
১৯৮৯ সালে সরাসরি সম্প্রচারিত
একটি টিভি অনুষ্ঠানে রেকর্ড
গড়েন এক মিনিটে ৫৮৫টি শব্দ
বলে। রেকর্ডটি ভেঙে গেলে পরের
বছরের ৫ জুন লাস ভেগাসের গিনেস মিউজিয়ামে ৫৪ দশমিক ২
সেকেন্ডে টানা বলে যান
৬০৩টি শব্দ। এক যুগ
ধরে সেটি নিজের দখলে রেখেছেন
দুঃসাহসী এই নারী।
রোমাঞ্চের প্রতি অসীম আগ্রহ ছেলেবেলা থেকেই। চড়েছেন
কিলিমানজারো পর্বতে, রাত
কাটিয়েছেন বরফের হোটেলে,
সাঁতার কেটেছেন হাঙরের সঙ্গে,
হানা দিয়েছেন শ্বেত ভল্লুকের
গুহায়! চালিয়েছেন রেসিং কার_যুদ্ধবিমান।
অভিজ্ঞতার ঝুলি যাঁর এত সমৃদ্ধ,
বলার জন্য বিষয়ের অভাব হওয়ার
কথা না কোনো দিনই। ঠিক সেটাই
ঘটেছে ফ্রানের বেলায়। সুযোগ
পেলেই হলো। টানা বকে যান নিজের জীবনের গল্প। তবে তখন
যে শ্রোতার কানের
পোকাগুলো পর্যন্তও
ছেড়ে দে মা কেঁদে বাঁচি বলতে থাকে,
সেদিকে কোনো খেয়াল
থাকে ফ্রানের?

1

No Responses

Write a response