গণজাগরণ মন্ঞ্চের একাল;সেকাল অথবা আওয়ামীলীগ পারে, আওয়ামীলীগই পারবে

আমি অবাক হই । যে-সকল মিডিয়া একসময়ে স্ব-প্রনোদিত হয়ে গণজাগরণ মন্ঞ্চকে প্রনোদনা দিয়েছে তারা আজ অপপরিকল্পিত ভাবে গণজাগরণ মন্ঞ্চকে কোনঠাসা করে রাখছে । একটানা ৭দিন যে ‘প্রথম আলো’-তে শাহবাগে গণজাগরণ মন্ঞ্চের বিভিন্ন ছবি ‘তারুণ্যের জোয়াড়’ শিরোনামে স্হান পেয়েছে, শুক্রবার মুসলমানদের ধর্মীয় উত্‍সবের দিনে জাহানার ইমামের ছবি ছাপিয়ে সেক্যুলারিজম কে প্রথম আলো যেভাবে উসকে দিয়েছে আজ তারাই মার খেয়ে পরে থাকার পরেও গণজাগরণ মন্ঞ্চের কোন নিউজের সাথে ছবি দেওয়ার প্রয়োজনই মনে করে না সেই প্রথম আলো । এটিএন নিউজের যে মুন্নি শাহা নামকরণ করেছে ‘শাহবাগ প্রজন্ম চত্বর’ এর আওয়ামীলীগ এর গলাচাপ খাওয়ার ভয়ে সেও আজ কাকতালীয়ভাবে নিরব-নিশ্চুপ । শাহবাগে লাইভ টেলিকাষ্ট নির্ভর হয়ে পড়েছিলো যে সময় টিভি তারাও আজ ঘোয়াড়ে ।

শুধুই যে গণজাগরণ মন্ঞ্চ ভাঙতে প্রধানমন্ত্রীর ডেক্স থেকে নির্দেশনা আসে তা নয় । পত্রিকাতে গণজাগরণ মন্ঞ্চকে নিয়ে কি রিপোর্ট আসবে, কোন পাতায় আসবে, ছবি কোন সাইজের কোন এ্যঙেলে থাকবে তাও সরাসরি নির্দেশনা দেয়া হচ্ছে । এর মাধ্যমে এটাও প্রমান হয়-এদেশের তথাকথিত গণমাধ্যম মোটেও স্বাধীন নয় । যদি তারা চাটুকারিতা আর দালালিপনা ছেড়ে ন্যুনতম স্বাধীন হওয়ার চেষ্টা পর্যন্ত করতো তাহলে অন্তত কারো না কারো মুখ থেকে ইমরান এইচঁ সরকার সহ গণজাগরণ মন্ঞ্চের এক এক অংশের দাবীদার সকলকে অন্তত এরকম কিছু প্রশ্ন করার মত সত্‍সাহস দেখতে পেতাম-‘যে সরকার গণজাগরণ মন্ঞ্চকে কোলে তুলে পোষন করেছে, সে সরকার কেন এখন রাস্তায় দাড়াতে পর্যন্ত দিচ্ছে না’, ‘এখন যদি জননিরাপত্তা বিঘ্নিত হয় তখন হয় নি কেনো ?’ ‘তখন যদি সংসদে এদেরকে দ্বিতীয় স্তরের মুক্তিযোদ্ধা ঘোষনা দেয়া যায়, এখন এদেরকে ছুড়ে ফেলা হচ্ছে কেন ?’ ‘তখন মিডিয়ায় “তারুণ্যের জোয়াড়” বলা হলে, এখন “বিশৃঙ্ঘলার চেষ্টা” বলা হয় কেনো ?’

না, এরকম কোন প্রশ্ন কোন সাংবাদিক-মিডিয়াকে করতে দেখলাম না । আওয়ামীলীগের অত্যাচারের ভয়ে তারা তা করলো না । তখন যে সূশীলরা গান রচঁনা করে, পত্রিকায় কলাম লিখে, গণজাগরণ মন্ঞ্চকে ‘লাল সালাম’ দিয়ে গেছে, তারাও ভয় পেয়ে চুপসে রয়েছে । আওয়ামীলীগ কে তারাও এতটাই ভয় পায় । সবখানে একটা জিনিসই দেখা গেল-একই অঙ্গে বহুরুপ ! বহুরুপী প্রধানমন্ত্রীও ! বহুরুপী সংসদও ! বহুরুপী মিডিয়াও ! বহুরুপী সূশীলরাও !

আর আওয়ামীলীগতো গোড়া থেকেই বহুরুপী ।

গণজাগরণ মন্ঞ্চ নিয়ে যতনা মাথা ব্যথা ছিলো হেফাজত-জামায়াতের । এখন তার চেয়েও বেশি মাথা ব্যাথার কারন আওয়ামীলীগের । রাজনৈতিক খেলাঘড়ে যতটা নিচুঁ হওয়া দরকার তার সবটাই- আওয়ামীলীগই পারে, আওয়ামীলীগই পারবে ।

* লেখাটি পূর্বে মুসলিম বাংলা ব্লগে প্রকাশিত হয়েছে ।

1

2 Responses

  1. Rex JafoR
    September 22, 2014

Write a response