ক্লিন শেভড চুলের স্টাইল

চুল পড়ছে, কিংবা পেকে যাচ্ছে? কোনো স্টাইলে ঢেকে রাখতে পারবেন এসব? সমাধান আছে একটা। সাহস করে কামিয়ে ফেলুন পুরো মাথা। ক্লিন শেভড বা বল্ড হেডের ফ্যাশনই এখন চলছে বেশ। যেকোনো পোশাকের সঙ্গে ক্লিন শেভড চুলের স্টাইল সহজে মানিয়ে যায়। ফুটবল তারকা রোনালদোর এমন স্টাইল বেশ কয়েক বছর আগে সাড়া ফেলেছিল। ইদানীং আমাদের দেশের তারকাদেরও এমন স্টাইলে দেখা যায়। সোলস ব্যান্ডের সদস্য নাসিম আলী করিয়েছেন এমন স্টাইল।

ছেলেদের সৌন্দর্যচর্চাকেন্দ্র হেয়ারোবিক্সের পরামর্শদাতা মাহবুব শাদীন বলেন, ‘বেশ কয়েক বছর ধরে ছেলেদের ক্লিন শেভড চুলের স্টাইলটা দেখা যাচ্ছে। তারকারা ছাড়াও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা বা স্টাইলিশ ছেলেরা এটি করছেন। এটা ত্রিশের পরে যাঁদের চুল পড়তে শুরু করে, তাঁদের জন্যও উপযুক্ত স্টাইল হতে পারে। অনেকে পশ্চিমা ধারা অনুসরণ করেও মাথা ন্যাড়া করার দিকে ঝুঁকছেন।’

‘ম্যায়াবাই চান্দি ছোলা, মুইও তাইলে চান্দি ছোলা।’ একটি মুঠোফোন সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানের এই জনপ্রিয় বিজ্ঞাপনে ‘চান্দি ছোলা (ন্যাড়া মাথা) ম্যায়াবাই’ হলেন বিজ্ঞাপনী সংস্থা গ্রে অ্যাডভারটাইজিং লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ গাউসুল আলম শাওন। তাঁর এমন চুলের স্টাইল চলছে আট বছর ধরে। তিনি বলেন, ‘আমি মাথা ন্যাড়া করেছিলাম চুল পড়তে শুরু করায়। এরপর দেখলাম স্টাইলটা মন্দ না, তখন থেকে স্থায়ীভাবে ন্যাড়া মাথাতেই আছি। এতে পোশাক নির্বাচনেও কোনো ঝামেলা হয় না। ক্যাজুয়াল বা ফরমাল সব পোশাকেই মানিয়ে যায়।’

জেনেনিন

ঘরে বসে বা স্যালনে গিয়ে মাথা ন্যাড়া করতে পারেন। তবে প্রথমবার ন্যাড়া করার জন্য স্যালনে যাওয়াই ভালো। কারণ, অভ্যাস না থাকায় মাথা শেভ করতে সমস্যা হতে পারে। মাহবুব শাদীন জানান, যাঁরা স্টাইল করে চুল কামিয়ে ফেলতে চান তাঁদের তিন দিন পর পরই একবার মাথায় ট্রিমার বা ক্ষুর চালাতে হবে। না হলে মাথায় খোঁচা খোঁচা চুল উঠে থাকবে। ন্যাড়া মাথার সঙ্গে ফ্রেঞ্চকাট দাড়ি খুব মানিয়ে যায়। অনেকে থুতনির কাছে অল্প একটু দাড়ি রাখেন, সেটিও এমন মাথার সঙ্গে মানিয়ে যায়।

যত্নআত্তি

মাথার ত্বক ঠিক রাখতে ন্যাড়া মাথায়ও শ্যাম্পু করতে হবে। এরপর হালকা জলপাই তেল বা গন্ধহীন নারকেল তেল মাথায় ঘষে নিতে পারেন। দুই কোয়া রসুনের সঙ্গে অল্প তেল মিশিয়ে মাথায় ম্যাসাজ করলেও ত্বক ভালো থাকবে। যাঁদের মাথায় খুশকি আছে, তাঁদের অবশ্যই অ্যান্টি ড্যানড্রাফ শ্যাম্পু ব্যবহার করা উচিত। এ ছাড়া চুল ফেলে দেওয়ার পর মাথায় আফটার শেভ লোশন ব্যবহার করতে হবে। ন্যাড়া মাথায় বাইরে গেলে অনেক সময় মাথার ত্বক শুষ্ক দেখায়। চামড়া উঠে আসে। এসব কারণে গাউসুল আলম শাওন শ্যাম্পুর পর মাথায় অল্প লোশন ব্যবহার করেন। এতে মাথার ত্বক মসৃণ হয়ে পড়ে।

সোর্সঃ ইন্টারনেট

No Responses

Write a response