কৃষি তথ্য সেবা চালু করলো গ্রামীণফোন

এই পোস্ট 10 of 94 পর্বে অন্তর্ভুক্ত ফেসবুক ইমো ব্যাবহার করুন

কৃষি তথ্য সেবা চালু করলো গ্রামীণফোন

ঢাকা: কৃষকদের জন্য কৃষি ভিত্তিক সেবা ‘জিপি কৃষিসেবা ২৭৬৭৬’ উদ্বোধন করেছে গ্রামীণফোন। কাস্টমাইজ ভয়েজ কনসালট্যান্সি বা মুঠোফোনে পরামর্শ সেবা প্রদানের মাধ্যমে কৃষকদের এ সেবা দিবে দেশের সর্ববৃহৎ মোবাইল সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানটি। এর ফলে কৃষকরা কৃষি বিষয়ক বিভিন্ন তথ্য সম্পর্কে অবহিত হতে পারবেন।

আজ রাজধানীর একটি হোটেলে অভিনব এ জিপি কৃষিসেবার উদ্বোধন করে গ্রামীণফোন। বাংলাদেশের কৃষকদের তথ্যগত সহায়তা প্রদান করাই গ্রামীণফোনের এ সেবার লক্ষ্য। এ সেবা ব্যবহার করে কৃষক শস্য উৎপাদন, শাক-সবজি ও মৎস্য চাষ, গবাদি পশু পালন এবং পুষ্টিসহ প্রয়োজনীয় সকল বিষয়ে তথ্য পাবে।

জিপি কৃষিসেবায় কৃষক যে শস্য/মাছ/গবাদিপশু উৎপাদন করতে চান সে বিষয়ে তিনি যে অঞ্চলে অবস্থান করছেন সেই অঞ্চলের সাথে মিল রেখে তথ্য দেয়া হবে। এই সেবা পেতে কৃষককে তার এলাকা এবং পছন্দের শস্য/মাছ/গবাদি পশুর নাম দিয়ে নিবন্ধন করতে হবে। একজন কৃষক সর্বোচ্চ তিনটি টাইপ বেছে নিতে পারবেন।

এই তথ্য হবে আইভিআর এবং ভয়েস ম্যাসেজ ভিত্তিক যা তারা মোবাইল ফোনের মাধ্যমে পাবেন। এ সেবা পেতে প্রতি সপ্তাহে খরচ হবে পাঁচ টাকা। এছাড়াও, গ্রাহকরা এগ্রো কল সেন্টারে ফোন করে কৃষি বিশেষজ্ঞদের সাথে কথা বলতে পারবেন প্রতি মিনিট ৩ টাকা করে। এই সেবার জন্য নিবন্ধিত গ্রাহকরা যে কোনো অপারেটরে ১ পয়সা সেকেন্ডে কল করতে পারবেন।

কৃষি সেবার উদ্বোধনকালে গ্রামীণফোনের প্রধান বিপণন কর্মকর্তা ইয়াসির আজমান বলেন, ‘জিপি কৃষিসেবা’ আমাদের অভিনব সেবাগুলোরই সর্বশেষ সংস্করণ। আমি বিশ্বাস করি, এটা কৃষকদের জীবনে নতুন সুবিধাদানের মাধ্যমে তাদের জীবনকে সহজ করে তুলবে। কৃষিপ্রধান দেশ হিসেবে আমাদের কৃষিখাতের উৎপাদন বাড়াতে সহজলভ্য সব প্রযুক্তির ব্যবহার করা উচিৎ।

এ প্রকল্পের লক্ষ্য সম্পূর্ণ কৃষি ব্যবস্থাপনার দক্ষতা বৃদ্ধিতে কৃষি বিশেষজ্ঞ, কৃষি সম্প্রসারণের সংগঠন ও কৃষিপণ্য বিক্রেতাদের একটি সমন্বিত প্ল্যাটফর্ম তৈরি করা।‘জিপি কৃষিসেবা’র প্রাথমিক পর্যায়টি উদ্বোধন করা হয়েছে। এ সেবার নতুন সংস্করণে প্রয়োজনীয় আরও তথ্য যোগ করা হয়েছে। কৃষিসেবার পরীক্ষামূলক পর্যায়েই প্রায় ১২ হাজার কৃষক সেবা নেয়ার জন্য নিবন্ধন করেছে।

No Responses

Write a response