কপিরাইট ফ্রী ইউনিক কন্টেন্ট লিখার কিলার টিপস?

কপিরাইট ফ্রী ইউনিক কন্টেন্ট হচ্ছে যে কোন সাইটের বা ব্লগের প্রান । আপনার সাইটে যদি কপিরাইট ফ্রী ইউনিক কন্টেন্ট না থাকে তাহলে আপনার সাইট গুগলের কাছে খুব বাজে ভাবে র‍্যাঙ্ক পাবে । সুতরাং, আপনি যদি গুগল ও অন্যান্য সার্চ ইঞ্জিন থেকে অরগানিক ট্র্যাফিক পেতে চান (অর্থাৎ, কি ওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে) তাহলে ইউনিক আরটিকেল লিখুন । কিন্তু কিভাবে লিখবেন ইউনিক আর্টিকেল ?

কপিরাইট ফ্রী ইউনিক এবং ফিচারড আরটিকেল লেখার টিপস ঃ

আপনার কন্টেন্টটিকে তথ্য সমৃদ্ধ করুন ঃ আপনি যদি কোন একটি নির্দিষ্ট বিষয়ে এক্সপার্ট না হন তাহলে ঐ বিষয়ে ব্লগিং করে কোন লাভ নেই। কিন্তু যদি কোন একটি বিশেষ বিষয়ে এক্সপার্ট হন, তাহলে সেই বিষয়ে আপনার লেখাটিকে তথ্য সমৃদ্ধ করে লিখুন  যতদুর সম্ভব । সব সময় পাঠকের কথা চিন্তা করে লিখুন (যেমন, আপনি একজন পাঠক হিসেবে যা আশা করেন ।) যাতে করে পাঠক আবার আপনার সাইটে ভিজিটে আসে । শুধুমাত্র গুগল বটকে টার্গেট করে কখনও লিখবেন না।

আপনার কন্টেন্টটি ডুপ্লিকেট কিনা চেক করুনঃ আপনার কন্টেন্টটি ইউনিক কিনা তা চেক করে তারপরে পাবলিশ করুন অন্যথায় গুগল আপনার সাইটকে র‍্যাঙ্ক দিবে না এবং সার্চ রেজাল্টের মধ্যেও আনবেনা । কন্টেন্টটি ইউনিক কিনা চেক করার জন্য আপনি নিম্নোক্ত সাইট দুইটি ব্যবহার করতে পারেন। যদি সাইটটি দ্বারা কোন ডুপ্লিকেট কিছু পান তাহলে ঐ অংশটা সংশোধন করে তারপরে পাবলিশ করুন ।

১) ডুপ্লিচেকার ২) স্মল এস ই ও টুলস

আপনার কন্টেন্টের ব্যাকরন চেক করুন ঃ যখন কোন কন্টেন্ট লিখেন তখন অবশ্যই আপনার কন্টেন্টের ব্যাকরণ চেক করে বাক্যগুলো সঠিক আছে কিনা দেখে তারপরে পোস্ট পাবলিশ করুন। অন্যথায় আপনি ভিজিটর হারাবেন ।

কপিরাইট ফ্রী ইমেজ ব্যবহার করুনঃ আপনার প্রতিটি কন্টেন্টের মাঝখানে কমপক্ষে একটি করে কপিরাইট ফ্রী ইমেজ ব্যবহার করুন । নিজে ইমেজ তৈরি করুন অথবা কপিরাইট ফ্রী সাইট গুলো থেকে ডাউনলোড করে ব্যবহার করুন । যদি একান্তই গুগলের থেকে ডাউনলোড করা ছবি ব্যবহার করতে চান, তাহলে কিছুটা এডিট (রেজুলেশন/পিক্সেল কমান/বাড়ানো, কাটা, জোড়া দেয়া, ছবির উপরে টেক্সট লিখে দেয়া, ইত্যাদি) করে ব্যবহার করুন।

কপিরাইট ফ্রী ভিডিও ব্যবহার করুনঃ আপনি আপনার পোস্টের শেষের দিকে একটি রিলেটেড ভিডিও জুড়ে দিতে পারেন এতে আপনার পোস্টটি অনেক আকর্ষণীয় হবে । অবশ্যই নিজের করা ভিডিও আপলোড করবেন অথবা ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যার এর মাধ্যমে ডাউনলোড করা ভিডিও এডিট করে তারপরে ব্যবহার করবেন । এরকম ভিডিও দেখতে যান FUNNY VIDEO CLIP

আশা করি , এই পোস্টটি আপনাদের অনেক উপকারে আসবে ।

আপনারা আরো বিস্তারিত জানতে চাইলে এই পোস্টটি  Tips to Write Copyright Free Unique Web Content পড়তে পারেন ।  কোন কিছু বুঝতে না পারলে অবশ্যই কমেন্টস করে জানাবেন, আমি চেস্টা করবো উত্তর দেয়ার জন্য ।

আমি ফেসবুকেঃ সুমন ভাইয়া

তথ্যসূত্র ঃ সব কিছুই এখন ইন্টারনেটে

No Responses

Write a response