এই ৯টি আচরণ করলেই সবাই আপনাকে ‘হাবা’ বলবে!

পৃথিবীর সকল মানুষই নিজেকে বুদ্ধিমান মনে করে। তবে ঘটনাচক্রে যখন অন্যর কাছে থেকে ক্ষতির সম্মখীন হয়, তখন ঠিকই নিজে নিজেই অনুধাবন করে তার বুদ্ধির দৌরত্ব। আপনি হাবা নাকি বুদ্ধিমান তা আপনার বহ্যিক আচরণের উপরই নির্ভর করে শতকার ৮৫ ভাগ। তাই চলাফেরার সময় এমন কোন আচরণ করবেন না, যে আচরণের মাধ্যমে ফুটে উঠবে আপনার বোকামি। আর বন্ধুরা আপনাকে বরতে শুরু করবে নির্বোধ। বিজনেস ইনসাইডারে বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন মূলত ৯টি আচরণে বুদ্ধিমানকেও নির্বোধ বলে মনে হয়।

ওই ৯টি কারণহলো-

১. হাতে মদের গ্লাস বা বিয়ার নিয়ে ছবি তোলা বড় ধরনের নির্বুদ্ধিতার পরিচায়ক। অথচ সেখানে এক গ্লাস পানি থাকলেও এত সমস্যা হতো না।

২. কথা বলতে গিয়ে অকারণে কঠিন কঠিন শব্দের ব্যবহার হাবাদের কাজ।

৩. কিছু শব্দ আছে যেগুলো সমার্থক বলে মনে হয়। কিন্তু পরিস্থিতি ও বাক্যের প্রয়োগে এদের ভিন্ন অর্থ হতে পারে। এসব ক্ষেত্রে সোজাসাপ্টা ও প্রচলিত শব্দ ব্যবহার করাই ভালো।

৪. খুব বেশি জোরে অথবা বেশি ধীর গতিতে হাঁটলে বোকা বোকা বলে মনে হতে পারে। আশপাশের মানুষ যে গতিতে হাঁটছেন তার চেয়ে আপনার গতির ব্যাপক পার্থক্য হলে এমনটা হয়।

৫. আই কনট্যাক্ট গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। কিন্তু কেউ চোখের দিকে তাকালে তা এড়িয়ে যেতে এদিক ওদিক করলে তা নির্বোধের আচরণ বলে গণ্য হয়।

৬. কাজে যত ধকলই আসুক না কেন, অফিসে বসে ক্ষোভ কাজের ওপর ঝারলে তা বোকাদের কাজ।

৭. বিরক্তির সঙ্গে কপাল কোঁচকানো দৃষ্টিকটু দেখায়। এতে একে আপনি বন্ধুভাবাপন্ন নয় বলে মনে হবেই, বোকা বলেও মনে করবেন অনেকে।

৮. কথা বলার সময় একঘেয়ে কণ্ঠে বলে যেতে থাকলে বিরক্তিকর হয়ে ওঠে। বোকার বক্তব্য বলেও মনে হবে।

৯. কারো কাছ থেকে পরামর্শ চাইতে গিয়ে অস্বস্তি প্রকাশ করছেন বলে মনে হলে তাকে নির্বোধ বলেই মনে করবে সবাই। অথচ কণ্ঠের উত্থান-পতন কাজে লাগিয়ে কথা বলা বুদ্ধিমত্তার পরিচায়ক।

No Responses

Write a response