ইন্টারনেট খরচ কমানোর কিছু সহজ উপায়

internet-bill

স্মার্টফোন সহজলভ্য হওয়ায় অনেকেই এখন স্মার্টফোনে নিয়মিতই ইন্টারনেট ব্যবহার করে থাকেন। তবে অনেকক্ষেত্রেই ইন্টারনেট খরচ একটি বড় বাধা হয়ে দাঁড়ায় এক্ষেত্রে। শুধু মোবাইলেই নয়, কম্পিউটারে ইন্টারনেট ব্যবহারের ক্ষেত্রেও একই সমস্যা হতে পারে।

তবে কিছু উপায় মেনে চললে ইন্টারনেটের বাড়তি খরচ অনেকাংশেই কমিয়ে আনা সম্ভব। আজ আপনাদের সামনে এমনই কয়েকটি উপায় তুলে ধরা হল যার মাধ্যমে সাশ্রয় করতে পারবেন ইন্টারনেট বিল।

১. ডেটা ব্যবহার ট্র্যাক করুন: আপনি যদি জানেন কোন কোন অ্যাপ আপনার ডেটা খরচ করছে, তাহলে সহজেই বাড়তি ডেটা খরচ কমিয়ে আনতে পারবেন। আর তাই প্রথমেই স্মার্টফোনের ডেটা ইউসেজ অপশন থেকে দেখে নিন কোন কোন অ্যাপ কী পরিমান ডেটা খরচ করছে।

২. Onavo Count ব্যবহার করুন: এই অ্যাপটি ইন্টারনেট খরচ কমাতে দারুণ কার্যকরী একটি অ্যাপ। স্মার্টফোনে অ্যাপটি ইন্সটল করে তাতে আপনার ডেটা প্যাকেজের তথ্য দিন। অ্যাপটি আপনাকে নির্দিষ্ট সময় পরপর ডেটা ইউসেজ সম্পর্কিত রিপোর্ট দিবে। ফলে আপনি সহজেই আপনার ডেটা খরচ সংক্রান্ত তথ্য পেয়ে যাবেন। আপটি ডাউনলোড করতে পারবেন এই ঠিকানা থেকে।

৩. মাই ডেটা ম্যানেজার: অ্যান্ড্রয়েড ও আই ও এস ফোনের জন্য ইনস্টল করুন এই অ্যাপটি। শুধু ফোনে নয়, মাল্টিপল ডিভাইসেও যদি ওয়াই-ফাই ও থ্রিজি ব্যবহার করেন, তাহলে এই অ্যাপসটি আপনাকে ডেটা ইউসেজের হিসেব রাখতে সাহায্য করবে।

৪. Wi-Fi ব্যবহার করুন: ভিডিও চ্যাট করার জন্য বা বড় অ্যাপস ডাউনলোড করার জন্য ফোনের ইন্টারনেট বন্ধ রেখে ওয়াই-ফাই ব্যবহার করুন। আধা ঘণ্টা ভিডিও চ্যাট করার জন্য খরচ হয় প্রায় ৩০০ মেগাবাইট ডেটা।

No Responses

Write a response