আপন ভাই বোনই হয় সেরা বন্ধু হয় !

আপন ভাই বোনই হয় সেরা বন্ধু হয় ! ভাই-বোনের সম্পর্ক তো আর ভাষায় প্রকাশের নয়। একসঙ্গে থাকলে সবচেয়ে অপ্রিয় যে মানুষটি আবার কয়েকঘন্টা তার সঙ্গে কথা না বললে কী যেনো অপূর্ণ রয়েছে। বাসায় সারাদিন খুনসুটি তবে সেই মানুষটিকে ছাড়া সবই যেনো শূণ্য। এমনই সম্পর্ক ভাই-বোনের। বাড়িতে যে মানুষটির উপর সবচেয়ে বেশি বিরক্ত, কিন্তু সবচেয়ে গোপন কথাটি আর কারো সঙ্গে শেয়ার করা যাবে না করতে হবে শুধুমাত্র বোনের সঙ্গে। ভাইবোনের সম্পর্কটা হচ্ছে শ্রেষ্ঠ বন্ধুত্বের সম্পর্ক। আর বোনের চেয়ে ভালো বন্ধু আর কেউ হতে পারে না।

যে দশটি কারণে বোনই শ্রেষ্ঠ বন্ধু তা নিচে দেয়া হলো:

১. জন্মের পর থেকে মানুষ যতো দুষ্টুমি বা অন্যায় করে তার সবকিছুতেই জীবনের প্রথম সঙ্গী থাকে আপনার বোন। সেই থেকে মৃত্যুর আগে পর্যন্ত ভাই-বোনের কখনোই বিচ্ছেদের নয়।

২. আপনার সকল ভুলকে ছোট শিশু মনে করে ক্ষমা করে দেওয়াই বোনের কাজ।

৩. প্রয়োজনে এবং বিপদের সময়ে মিথ্যা বলেও পক্ষ নেবেন আপনার বোন।

৪. জীবনের প্রতিটি পদক্ষেপে একজন বোনকেই দেখা যায় শিক্ষকের ভূমিকায়। শপিং কিভাবে করবেন এমনকি বিপরীত লিঙ্গের সঙ্গে কি ধরনের আচরণ করতে হবে সব শিক্ষাই বোনের কাছ থেকে পাবেন।

৫. যতদিন প্রয়োজন বোনের আলমিরাটি নিজের মতো করে ব্যবহার করতে পারবেন।

৬. ফেসবুকে আপনার প্রতিটি স্ট্যাটাস, ছবি এবং মন্তব্যে যদি কেউ লাইক না দেয় তবে একজন অন্তত লাইক দেবেন। আর তিনি হচ্ছেন আপনার বোন।

৭. প্রতিটি বিরক্তিকর এবং একঘেয়ে পারিবারিক অনুষ্ঠানে আপনার নজর থাকবে আপনার বোনের দিকে। কারণ তার সঙ্গে গল্প করলেই তো সকলে একঘেয়ে দূর হয়ে সময় নিমিষেই শেষ হয়ে যাবে।

৮. সকল বিরূপ পরিস্থিতিতে এবং অনেক কৃত্রিম বন্ধুর থেকে রক্ষা করবে আপনার বোনটি। সেজন্যে প্রাথমিকভাবে বিরক্ত লাগলেও, আখরে সুফল পাবেন।

৯. সবসময় বোনের সঙ্গে খুনসুটি করবেন, তাকে চটিয়ে দেবেন। তবে এই কাজটি অন্য কেউ তার সঙ্গে করলে বিরক্ত হবেন।

১০. হাসি-কান্না, স্বপ্ন সব কিছুই নিজের মতো করে শুধুমাত্র বোনের সঙ্গে শেয়ার করতে পারবেন। আর তিনিও আপনার স্বপ্নকে একইভাবে সম্মান করবেন।

সোর্সঃ ইন্টারনেট

No Responses

Write a response