অল্প বয়সে পিতা-মাতা হবার রেকর্ড যাদের

বিশ্ব অত্যন্ত দ্রুত গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে এবং এর সাথে বিভিন্ন বিষয়েরও অস্বাভাবিক পরিবর্তন হচ্ছে। এখন শিশুরা সময়ের আগে অনেক কিছু বুঝতে শিখেছে। তাইতো শিশুদের ঘরে এখন শিশুর জন্ম। আজ সেই অপ্রাপ্তবয়সী মা-বাবাদের নিয়ে আলোচনা করা হল-

১. লিনা মেদিনা:

একজন শিশুর যখন মাত্র স্কুলে যাবার বয়স হয়, সেই বয়সে মাতৃত্বের স্বাদ গ্রহণ করেছে পাঁচ বছর ছয় মাসের এই শিশু। ১৯৩৯ সালের ১৪ই মে তিনি একটি পুত্র সন্তানের জন্ম দেন। লিনার মা-বাবা যখন দেখেন তার পেটের মেদ অস্বাভাবিক হারে বৃদ্ধি পেতে শুরু করেছে, তখন তাকে হাসপাতালে নিয়ে যান। পরে তারা এই খবর জানতে পারেন।

তারা প্রথমে মনে করেছিলেন এটি কোনও টিউমার হবে, কিন্তু তারা আশ্চর্য হয়ে যান, যখন জানতে পারে শিশু লিনা সাত মাসের সন্তান সম্ভবা। কিন্তু আজ পর্যন্ত লিনার সেই সন্তানের পরিচয় জানা যায় নি।

২. শিন স্টেওয়ার্ট এবং ইমা ওয়েবস্তের:

বিশ্বের আরও এক জোড়া শিশু মা-বাবা শিন স্টেওয়ার্ট এবং ইমা ওয়েবস্তের। ব্রিটেনের এই দুইজন দীর্ঘদিন সম্পর্কে থেকে মা-বাবা হয়ে যান। শিন মাত্র ১২ বছর বয়সে পিতা এবং ইমা ১৫ বছর বয়সে একটি পুত্র সন্তানের মা-বাবা হন।

তারা দুইজন একত্রে তাদের সন্তানকে লালন-পালন করবেন বলে কথা দিলেও ইমা আরেকজনের সাথে বিয়ে করে চলে যান। কিন্তু শিনকে বিভিন্ন আইনি ঝামেলায় পড়তে হয়েছে।

৩. এপ্রিল কারার ও নাথান ফিশবোর্ন:

ব্রিটেনের এই জোড়া প্রেমিক যুগল ছিল। এপ্রিল ১৩ বছর বয়সে গর্ভধারণ করেন এবং ১৪ বছর বয়সে মা হন। কিন্তু তারা তাদের সন্তানকে একত্রে লালন-পালন করেছেন এবং আজ অবধি তারা একসাথে আছেন।

৪. টিয়া ডেভিস ও জর্দান উইলিয়ামস:

টিয়া ডেভিসের মাতা-পিতাও কিশোর বয়সে সন্তান জন্ম দিয়েছেন। তাদের উত্তরসূরি হিসেবে তিনিও কম যান না। সেও ১৪ বছর বয়সে তার প্রথম সন্তানের জন্ম দেন।

৫. আলেশিয়া গ্রেগসন্স:

আলেশিয়া গ্রেগসন্স মাত্র ১২ বছর বয়সে গর্ভধারণ করেন। কিন্তু তিনি অজানা এক পুরুষের রোষানলের শিকার হয়ে এই অবস্থায় পড়েন। কিন্তু সে এই কথা কাউকে বলেনি। যখন তার সন্তান প্রসবের ব্যথা হয় তখন সবাই জানতে পারে।

প্রথমে তিনি একটি পুত্র সন্তানের জন্ম দেন। তার ঠিক পরের বছর সে আবার সেই একই পুরুষের ঔরসে দ্বিতীয় সন্তানের জন্ম দেন।–সূত্র: স্টোরিও।

No Responses

Write a response