অর্পিতার বিয়ের যত চমক

9e0f3786423b38a41a2743a2661ff043-Arpita_caption-1গৃহহীন শিশু থেকে ফালাকনুমা প্যালেসে অর্পিতা খানের যাত্রাটা রূপকথার গল্পকেও যেন হার মানায়। বান্দ্রার একটা রাস্তায় কান্নারত ছোট্ট এক শিশুর কান্নার শব্দ গিয়ে পৌঁছেছিল সালমান খানের বাবা সেলিম খানের কানে। শিশুটিকে বুকে টেনে নিয়েছিলেন সেলিম। নাম দিয়েছিলেন অর্পিতা খান। এভাবেই শুরু হয়েছিল অর্পিতার বর্ণাঢ্য জীবনের গল্প। খান পরিবারে বেড়ে উঠতে থাকেন অর্পিতা। লন্ডন ইউনিভার্সিটি থেকে ফ্যাশন ইন মার্কেটিং অ্যান্ড ম্যানেজমেন্টে উচ্চতর ডিগ্রি অর্জন করেন। তিনি পেশায় ফ্যাশন ডিজাইনার। সম্প্রতি জীবনের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায়ে প্রবেশ করেছেন অর্পিতা। বন্ধু আয়ুশ শর্মার সঙ্গে তাঁর বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়েছে ১৮ নভেম্বর। হায়দরাবাদের ফালাকনুমা প্যালেসে অনুষ্ঠিত বিয়ের অনুষ্ঠানটিকে বছরের অন্যতম আলোচিত বিয়ের অনুষ্ঠান হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে। বলা হচ্ছে, অর্পিতার বিয়ের পেছনে সব মিলিয়ে ৬৫ কোটি রুপি খরচ করেছে খান পরিবার। আর অর্পিতার বিয়ের উপহার হিসেবে তাঁকে ১৬ কোটি রুপি দিয়ে ফ্ল্যাট কিনে দিয়েছেন সালমান। এক প্রতিবেদনে অর্পিতার তারা ঝলমলে বিয়ের অনুষ্ঠানে ঘটে যাওয়া চমকপ্রদ কিছু ঘটনার কথা জানিয়েছে টাইমস অব ইন্ডিয়া।

প্রেমিকার পরিচয় দিলেন সালমান

‘বিগহার্ট লাভারবয়’ সালমান খান অনেকবারই প্রেমে পড়েছেন, প্রত্যাখ্যাতও হয়েছেন। অতীতে সংগীতা বিজলানি, সোমি আলী, ঐশ্বরিয়া রাই কিংবা ক্যাটরিনা কাইফকে প্রেমিকা বলে পরিচয় করিয়ে দিয়েছেন খান সাহেব। তাঁরা সবাই এখন সালমানের সাবেক প্রেমিকা। অর্পিতার বিয়ের অনুষ্ঠানে সালমানের সঙ্গে বেশির ভাগ সময় পাশে থাকতে দেখা গেছে রোমানীয় টিভি তারকা ইলুলিয়া ভেঞ্চুরকে। এভাবে ইশারা-ইঙ্গিতে ইলুলিয়াকেই বর্তমান প্রেমিকা হিসেবে পরিচয় করিয়ে দিয়েছেন সালমান। অনেক দিন থেকেই সালমান ও ইলুলিয়ার সখ্যের গুঞ্জন চলছে। মাঝে সহ-অভিনেত্রী জ্যাকুলিন ফার্নান্দেজ ও ডেইজি শাহের সঙ্গেও সালমানের সখ্যের খবর চাউর হয়। কিন্তু অর্পিতার বিয়ের অনুষ্ঠানে সবাই প্রায় নিশ্চিত হন, সালমানের নজর এখন ইলুলিয়ার দিকেই। সালমানের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গেও ভালোই সখ্য গড়ে তুলেছেন ইলুলিয়া। এ ছাড়া সালমানও বিদেশিনি বউ ঘরে আনবেন বলে ইঙ্গিত দিয়েছিলেন। তিনি বলেছিলেন, ‘খুব শিগগির আমার জীবনে কিছু একটা ঘটতে যাচ্ছে। আমার বাবা একজন পাঠান, আর মা হিন্দু। দ্বিতীয় মা বার্মিজ ক্যাথলিক। ভাবি পাঞ্জাবি। আমি নিজের জন্য দেশের বাইরে থেকেই বউ আনার চিন্তা-ভাবনা করছি।’ শুধু তা–ই নয়, ইলুলিয়া যাতে অর্পিতার বিয়েতে অংশ নিতে পারেন সেজন্য সালমান তাঁর গ্যালাক্সি অ্যাপার্টমেন্টের পাশেই একটি পাঁচ তারকা হোটেলে ইলুলিয়ার থাকার ব্যবস্থা করেন।

অর্পিতার ‘কালিরা’ আচার-অনুষ্ঠান

অর্পিতার বিয়েতে সালমানের সাবেক প্রেমিকা ক্যাটরিনা কাইফ হাজির হবেন কি না, তা নিয়ে সংশয় ছিল। তবে শেষ পর্যন্ত ঠিকই বিয়ের অনুষ্ঠানে হাজির হন ক্যাট। অর্পিতার বিয়ের অনুষ্ঠানের অন্যতম চমক ছিল ‘কালিরা’ আচার-অনুষ্ঠান। পাঞ্জাবি বিয়ের রীতি অনুযায়ী কনের হাতের বালায় পাতা গুঁজে দেওয়া হয়। কনে তাঁর হাত অবিবাহিত মেয়েদের মাথার ওপর নাড়তে থাকেন। কনের বালা থেকে পাতা যে মেয়ের মাথায় খসে পড়ে, বিশ্বাস করা হয় ওই মেয়ের শিগগির বিয়ে হবে। কালিরা আচার-অনুষ্ঠানের সময় অর্পিতার বালা থেকে পাতা খসে পড়ে ক্যাটরিনার মাথার ওপর। বলিউডে জোর গুঞ্জন, আগামী ফেব্রুয়ারিতে বিয়ে করতে যাচ্ছেন ক্যাটরিনা ও তাঁর বর্তমান প্রেমিক রণবীর কাপুর। কিছুদিন আগে এক বাড়িতে বসবাসও শুরু করেছেন এ তারকা যুগল। তবে কি খুব শিগগির মালা বদল করতে যাচ্ছেন রণবীর-ক্যাটরিনা!

‘ক্যাটরিনা কাপুর’ সম্বোধন করলেন সালমান

ছবির সেটে কিংবা প্রচারণার সময় সহ-তারকাদের খোঁচানোর স্বভাবের জন্য কুখ্যাতি আছে সালমানের। অর্পিতার বিয়েতেও ঠিক তেমনটাই করতে দেখা গেছে সালমানকে। তিনি ক্যাটকে ভালোই খুঁচিয়েছেন। বিয়ের পুরো অনুষ্ঠানে বেশির ভাগ সময়ই মঞ্চে নাচ-গানে মত্ত ছিলেন সালমান। এক পর্যায়ে ক্যাটরিনার ‘চিকনি চামেলি’ গান বেজে উঠলে তাঁকে মঞ্চে ডাকতে থাকেন খান সাহেব। তিনি বলেন, ‘ক্যাটরিনা, তোমার গান বাজছে।’ বিব্রতকর পরিস্থিতি এড়াতে নির্মাতা করণ জোহরের পেছনে লুকিয়ে পড়েন ক্যাট। কিন্তু লাভ হয়নি। তাঁকে লুকাতে দেখে করণকে মঞ্চে ডাকেন সালমান এবং সঙ্গে ক্যাটকে নিয়ে যেতে বলেন। শেষ পর্যন্ত বাধ্য হয়ে মঞ্চের দিকে যেতে থাকেন ক্যাটরিনা। তখন সালমান টিপ্পনি কেটে বলেন, ‘আমি কি করতে পারি … তোমাকে আমি ক্যাটরিনা খান হওয়ার সুযোগ দিয়েছিলাম, কিন্তু তুমি ক্যাটরিনা কাপুর হওয়ার পথ বেছে নিয়েছ।’

অর্পিতার আবেগপূর্ণ বক্তব্যতিন ভাই আরবাজ, সোহেল ও সালমানের সঙ্গে অর্পিতা

খান পরিবারের জন্য অর্পিতার বিয়েটা এমনিতেই অনেক বেশি আবেগের ছিল। সেই আবেগে বাড়তি মাত্রা যোগ করে অর্পিতার আবেগপূর্ণ বক্তব্য। পরিবারের সদস্যদের উদ্দেশে একটি বক্তৃতা লিখে এনেছিলেন অর্পিতা। কিন্তু বিয়ের অনুষ্ঠানে তিনি এত বেশি আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েন যে, বক্তব্যটি নিজে পড়তে পারেননি। এক পর্যায়ে প্রিয়াঙ্কা চোপড়াকে বক্তব্যটি পড়ে শোনানোর অনুরোধ জানান অর্পিতা। অনুরোধ রাখেন প্রিয়াঙ্কা। অর্পিতার বক্তব্য পড়ে শোনান তিনি। অর্পিতা তাঁর বক্তব্যে লিখেছেন, ‘এমন অসাধারণ একটি পরিবারে বেড়ে ওঠার সুযোগ পেয়ে নিজেকে সবচেয়ে সৌভাগ্যবান মনে করছি আমি। আমার ভেতরের শক্তির স্তম্ভ আমার ভাইয়েরা। সোহেল ভাই বিয়ে করার আগ পর্যন্ত আমরা এক ঘরেই থাকতাম। তিনি আমার বন্ধুর মতোই। আরবাজ ভাই আমার পথনির্দেশক। তিনি সব সময় আমাকে বলেছেন, কোনটি ভালো আর কোনটি মন্দ। সবচেয়ে বড় হৃদয়ের অধিকারী সালমান ভাই। তাঁর জন্য জীবনে কখনোই ভুল করতে পারিনি আমি। এখন পর্যন্ত আমি যা কিছু করেছি, তার সবকিছুতেই সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন তিনি।’

আরবাজপুত্র আরহানের মনোমুগ্ধকর মঞ্চ পরিবেশনা

অর্পিতার বিয়ের অনুষ্ঠানের অন্যতম আকর্ষণ ছিল আরবাজ খান ও মালাইকা অরোরার ছেলে আরহানের মনোমুগ্ধকর মঞ্চ পরিবেশনা। বিয়ের অনুষ্ঠানের আগেই বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবরে বলা হয়, বিয়েতে আরবাজ, সালমান ও সোহেল বিশেষ নৃত্য পরিবেশনায় অংশ নেবেন। কথা রেখেছেন তাঁরা। সালমানের তুমুল জনপ্রিয় ‘জাওয়ানি ফির না আয়ে’ গানের সঙ্গে নেচেছেন এই তিন ভাই। এ ছাড়া মঞ্চে মিকা সিংয়ের সঙ্গে কণ্ঠ মিলিয়েছেন আরবাজ। তবে সবকিছুকে ছাপিয়ে যায় আরবাজপুত্র আরহানের মঞ্চ পরিবেশনা। মঞ্চে উঠেই জ্যাকেট খুলে মঞ্চের পাশে বসা মেয়েদের দিকে তা ছুড়ে দেয় আরহান। এরপর অসাধারণ নাচের প্রতিভার প্রমাণ দেয় সে। জুনিয়র খানকে উৎসাহ দিতে দর্শক-সারি থেকে চিৎকার-চেঁচামেচি শুরু হয়ে যায়। একজন আমন্ত্রিত অতিথি আরহানের নাচে মুগ্ধ হয়ে মন্তব্য করেন, শিগগির হৃতিক রোশন ও শাহিদ কাপুরের মতো তারকাদের টক্কর দিতে যাচ্ছে আরহান।

পাগড়ি মাথায় সালমান-আমির

বরাবরই আমির খান ও সালমান খানের দোস্তি সবার নজরে পড়েছে। অর্পিতার বিয়ের অনুষ্ঠানেও তার ব্যতিক্রম হয়নি। অর্পিতার ‘হলুদ’ ও ‘সংগীত’ অনুষ্ঠানে যোগ দিতে না পারলেও অর্পিতার বিয়ের অনুষ্ঠানে ঠিকই হাজির হন আমির। সেখানে পাগড়ি মাথায় আমিরকে দেখা যায়। শুধু আমিরই নন, সালমানের মাথায়ও পাগড়ি ছিল। সাদা রঙের পাগড়িতে দারুণ মানিয়েছিল সালমান ও আমিরকে।

সোর্সঃ ইন্টারনেট

No Responses

Write a response